সরকারের এক বছর পূর্তি আজ, ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

রেকর্ড টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তি আজ। গত বছরের এই দিনে দল হিসেবে আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসে। টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা। নানা চ্যালেঞ্জ ও প্রত্যাশা নিয়ে নতুন মেয়াদে দায়িত্ব পাওয়া সরকার গত এক বছরে কতোটা প্রত্যাশা পূরন করতে পেরেছে এ নিয়ে হিসাব নিকাষ চলছে। তবে সরকার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বিগত বছরে সরকারের অনেক অর্জন রয়েছে। অনেক মেগা প্রকল্প এগিয়ে চলছে। জনগণের জীবনমানের উন্নয়ন হয়েছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, গত এক বছরে সরকারের অর্জনের পাশপাশি আছে ব্যর্থতাও।

এছাড়া এই সময়ে নানা ঘটনা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে, সরকারের অস্বস্তির কারণ হয়েছে। ভাল-মন্দ, আশা-দুরাশার মধ্য দিয়েই কেটেছে সরকারের নতুন মেয়াদের প্রথম বছর। ক্ষমতা গ্রহণের বর্ষপূর্তির দিনে আজ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন। সন্ধ্যায় তার ভাষণ টেলিভিশন রেডিওতে সম্প্রচার করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে বিগত এক বছরে সরকারের অর্জন এবং আগামী দিনের উন্নয়ন পরিকল্পনা জাতির সামনে তুলে ধরবেন। ২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। নব প্রত্যয়ে ক্ষমতায় এসে শুরুতেই নানা উদ্যোগ নেয় সরকার। গ্রহণ করে নতুন নতুন উন্নয়ন প্রকল্প। মন্ত্রিসভার কাজের গতি বাড়ানোর প্রত্যাশা ব্যক্ত করা হয়েছিল সরকার গঠনের সময়েই। যদিও বছরজুড়েই নানা কারণে সমালোচনার মুখে পড়েন কোন কোন মন্ত্রী। ২০১৯ সালের বিজয় দিবসের আগে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় ১০ হাজার ৭৮৯ জন রাজাকারের নামের তালিকা প্রকাশ করে। এই তালিকায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চিফ প্রসিকিউটর এবং রণাঙ্গনের অনেক মুক্তিযোদ্ধার নাম আসায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে তা স্থগিত করা হয়।

পেঁয়াজসহ কিছু নিত্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় সমালোচনার মুখে পড়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। গত একবছরে সরকার প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পারলেও অর্থনীতির বেশির ভাগ সূচক ছিল নিচের দিকে। একমাত্র প্রবাসী আয় ছাড়া অন্য সূচকে সুখবর ছিল না। ধুঁকে ধুঁকে চলেছে শেয়ার বাজার। ব্যাংকিং খাতের দুরবস্থা কাটেনি নানা উদ্যোগ নেয়ার পরও। গত এক বছরে পদ্মা সেতু, মেট্রোরেলসহ মেগা প্রকল্পগুলোর কাজে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। তবে পদ্মা সেতু ও মেট্রোরেল গত বছর চালু হওয়ার কথা থাকলেও এ দুটি প্রকল্পের সময় বাড়ানো হয়েছে নতুন করে। অর্ধেক পদ্মা সেতু এখন দৃশ্যমান। মেট্রোরেলের ট্র্যাক বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে দ্রুত গতিতে। এছাড়া সরকারের নতুন বছরের শুরুতে ধর্ষণের ঘটনা বেড়ে যাওয়ায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বিশেষ উদ্যোগ নিতে হয়।

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ, ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত হত্যাকাণ্ডের মতো কয়েকটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা পুরো দেশবাসীকে নাড়া দেয়। তবে নুসরাত হত্যার দ্রুত বিচার এবং ফাহাদ হত্যায় জড়িতদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনায় সরকার সাধুবাদ পেয়েছে দেশবাসীর। মানবাধিকার সংগঠনগুলোর তথ্য গত বছরে মানবাধিকার পরিস্থিতি ছিল উদ্বেগজনক। এছাড়া এই বছরে সড়কে দুর্ঘটনা এবং প্রাণহানি দুটোই বেড়েছে।

গত সেপ্টেম্বরে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান শুরু করে দেশজুড়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছিল সরকার। এই অভিযানে অনেকে আশাবাদী হয়েছিলেন। কিন্তু বছর শেষে দৃশ্যমান অভিযান না থাকায় অনেকে হতাশা প্রকাশ করেছেন। এছাড়া সমস্যা হয়ে দেখা দেয়া রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে গত বছরে উল্লেখযোগ্য কোন অগ্রগতি হয়নি। নানা চ্যালেঞ্জ আর অপ্রাপ্তির মাঝেও রাজনৈতিক অঙ্গনে স্থিতিশীলতায় সরকার স্বস্তিতেই বছর পার করেছে। এটিকেও বড় অর্জন হিসেবে দেখা হচ্ছে।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা