এবারের বাজেট মানবিক বাজেট: অর্থমন্ত্রী

জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনা শুরু হয়েছে। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সোমবার (১৫ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় আলোচনা শুরু হয়। আলোচনা শেষে আজই পাস হবে সম্পূরক বাজেট।

অধিবেশনের শুরুতে স্পিকার সম্পূরক বাজেট পাসসহ আজ সংসদে অনেক কার্যসূচি রয়েছে উল্লেখ করে সবাইকে সময়মতো বক্তব্য শেষ করার অনুরোধ করেন।

এদিকে আজ সংসদে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, অর্থনৈতিক উন্নয়ন নয়, এবারের বাজেটে মানুষকে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। মানুষ না থাকলে বাজেট কার জন্য। বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে দেশের মানুষকে আমাদের বাঁচাতে হবে। এবারের বাজেট মানবিক বাজেট।

অর্থমন্ত্রী করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনা করে বাজেট বাস্তবায়নে সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

সোমবার (১৫ জুন) সংসদে চলতি (২০১৯-২০) অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ওপর সমাপনী বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, এ বছর বাজেটের সংযোজন-বিয়োজন বা সমন্বয়ের কারণটি আমাদের সবার জানা। বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এর বিবেচনায় আমরা সম্পূরক বাজেটে রাজস্ব আয় ও ব্যয় কিছু সমন্বয় করার চিন্তা করেছি। জিডিপি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রাও আমরা ৮.২ শতাংশ কমিয়ে ৫.২ শতাংশ নির্ধারণ করেছি। আমরা যদি এই পুনর্নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারি তা হবে দক্ষিণ এশিয়ার সর্বোচ্চ।

রবিবার (১৪ জুন) সম্পূরক বাজেটের ওপর আলোচনা শুরুর কথা থাকলেও মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুতে সংসদে উত্থাপিত শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনা এবং রেওয়াজ অনুযায়ী বৈঠক মুলতবি করায় তা হয়নি। ফলে আজ একদিনের মধ্যেই আলোচনা ও সম্পূরক বাজেট পাস হবে।

উল্লেখ্য, ১১ জুন জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের সাধারণ বাজেট পেশ হয়। সংসদ সচিবালয় থেকে পূর্বঘোষিত ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ১৫ জুন সম্পূরক বাজেট এবং ৩০ জুন সাধারণ বাজেট পাস হওয়ার কথা।

প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত পরিসরে এবার বাজেট অধিবেশন হচ্ছে। যার কারণে বাজেটের ওপর আলোচনার সময়ও অন্যান্য অর্থবছরের তুলনায় কমানো হয়েছে। সংসদের বৈঠকেও এমপিরা রোস্টার ভিত্তিক যোগদান করছেন। পূর্ব পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রত্যেক দিনের উপস্থিতি ৮০-৯০ জনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা হচ্ছে।

বৈশাখী নিউজজেপা

loading...