ফিফা সভাপতির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা

ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার আইনি প্রক্রিয়া শুরু করেছেন এক বিশেষ সুইস প্রসিকিউটর। মামলাটি সুইস অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল লাওবেরের সঙ্গে ফিফা সভাপতির সঙ্গে এক ‘গোপন বৈঠক’ সম্পর্কিত। খবর এপি

সুইস কর্তৃপক্ষের দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রসিকিউটর স্টেফান কেলার একইসঙ্গে ইনফান্তিনো ও এক আঞ্চলিক প্রসিকিউটর রিনাল্ডো আর্নল্ডের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করেছেন। আর অ্যাটর্নি লাওবেরের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চালানোর অনুমোদন চেয়েছেন।

জানা যায়, ২০১৭ সালের জুনে বার্নের এক হোটেলে জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর সঙ্গে গোপন বৈঠক করেছিলেন সুইস অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল লাওবের। সেই বৈঠকে কী কথা হয়েছিল, তা দুজনের কেউ জানাননি। পরবর্তীতে দুজনেই বলেন, তাদের মধ্যে কি আলোচনা হয়েছিল, তা নাকি কিছুই মনে নেই তাদের। ওই সময়ে ১৫ মাসের মধ্যে সেটি ছিল তাদের তৃতীয় বৈঠক।

ফিফা প্রেসিডেন্ট ও সুইস অ্যাটর্নি জেনারেলের মধ্যে বার বার গোপন বৈঠকের কারণে তাদের বিরুদ্ধে বেআইনি কর্মকাণ্ডের অভিযোগ উঠে। সেই গোপনীয়তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন সুইস প্রসিকিউটর স্টেফান কেলার।

এদিকে, গত সপ্তাহে পদত্যাগ করেন সুইস অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল লাওবের। সম্প্রতি আদালত জানায়, ফিফার বিরুদ্ধে দুর্নীতি নিয়ে চলা এক তদন্তে তথ্য গোপন, মিথ্যা কথা বলে সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোকে আড়াল করার চেষ্টা করেছেন অ্যাটর্নি লাওবের। এরপরই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত জানান তিনি। যদিও নিজের দিকে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ফিফা সভাপতি। জোর দিয়ে জানিয়েছেন, কোনোরকম অন‌্যায় করেননি তিনি। একই সঙ্গে অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল লাওবেরও একই বক্তব্য, কোনো অন্যায় করেননি তিনি।

অ্যাটর্নি জেনারেল লাওবেরের অফিসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গত মঙ্গলবার পদত্যাগপত্র দিয়েছেন তিনি। ওই পদে আগামী ৩১ অগাস্ট পর্যন্ত দায়িত্ব পালনের কথা ছিল তার।

২০১৬ সালে ফিফা সভাপতি নির্বাচিত হন ইনফান্তিনো। দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত ও পরবর্তীতে নিষিদ্ধ হওয়া সাবেক প্রধান সেফ ব্লাটারের আসনে বসেন তিনি। দায়িত্ব নিয়ে ইনফান্তিনো ফুটবলকে দুর্নীতিমুক্ত করার দাবি তুলেছিলেন। এখন তার বিরুদ্ধেই উঠেছে দুর্নীতির অভিযোগ।

বৈশাখী নিউজজেপা