চীন সীমান্তে সাবসনিক ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করছে ভারত

চীনের সঙ্গে অভিন্ন সীমান্তের কাছাকাছি দীর্ঘ পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েনে তৎপর হয়েছে ভারত। যখন দুই প্রতিবেশীর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সীমান্ত নিয়ে প্রচণ্ড উত্তেজনা বিরাজ করছে তখন দিল্লির পক্ষ থেকে এই পদক্ষেপ নেয়া হলো।

ভারতের প্রভাবশালী হিন্দুস্তান টাইমস অজ্ঞাত কয়েকটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার ভারত সীমিতসংখ্যক নির্ভয় ক্ষেপণাস্ত্র চীন সীমান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর মোতায়েন করেছে। দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি এ ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা এক হাজার কিলোমিটার।

১৯৬২ সালে ভারত ও চীনের মধ্যে ভয়াবহ যুদ্ধের পর প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা প্রতিষ্ঠা করা হয়, তবে সীমানা চিহ্নিতকরণের কাজ খুব কমই এগিয়েছে, বরং দু দেশের মধ্যকার সীমান্তে দফায় দফায় গুলিবিহীন সংঘর্ষ হয়েছে।

সূত্রগুলো বলছে, ভারত আনুষ্ঠানিকভাবে নির্ভয় সাবসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রটি সেনাবাহিনী ও নৌবাহিনীর হাতে তুলে দেবে। তবে তার আগে এ ক্ষেপণাস্ত্রের সপ্তম দফা পরীক্ষা সম্পন্ন করতে হবে। গতকালই ভারত বর্ধিতপাল্লার সুপারসনিক ব্রাহ্মস ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য এ ক্ষেপণাস্ত্র ৪০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।

গত মে মাসে লাদাখ সীমান্তে ভারত এবং চীনের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের পর দু দেশের মধ্যকার সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি ঘটে। সংঘর্ষে ভারতের অন্তত ২০ সেনা নিহত হয়। এরপর দুপক্ষ কয়েকদফা শান্তি আলোচনায় বসলেও সীমান্তে শক্তি বাড়ানোর কাজ কেউ বন্ধ করেনি। সূত্র : পার্সটুডে।

বৈশাখী নিউজএপি