করোনা সতর্কতার জন্য জনবল কমাতে পারবে ব্যাংক

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা পরিপালন করে কার্যক্রম চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ব্যাংকগুলোকে। ব্যাংক চাইলে অভ্যন্তরীণভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে জনবল কমিয়ে কার্যক্রম চালাতে পারবে। তবে, লোক সমাগম কমানোসহ সব ধরনের কার্যক্রম স্বাস্থ্যবিধি মেনে চালাতে হবে।

ইতিমধ্যে এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করে ব্যাংকগুলোতে পাঠানো হয়েছে।

করোনাভাইরাস বাড়তে থাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে একটি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। সরকারি ওই নির্দেশনায় জরুরি সেবায় নিয়োজিত প্রতিষ্ঠান ছাড়া সব সরকারি, বেসরকারি অফিস, শিল্প কারখানা ৫০ ভাগ জনবল দিয়ে পরিচালনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর গর্ভবতী, অসুস্থ ও ৫৫ বছরের বেশি বয়সীদের বাড়িতে অবস্থান করে কাজ করার ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক এক্ষেত্রে করোনার বিদ্যমান পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন করে অভ্যন্তরীণভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘জনবল কমানোর বিষয়টি ব্যাংকগুলোর ওপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। কেননা কোনো শাখা হয়তো ৫ জন লোক দিয়ে চলে। সেখানে তো আর অর্ধেক জনবল থাকলে চলবে না।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলারে সরকারের আরও কিছু নির্দেশনা পরিপালন করতে বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর সভা, সেমিনার, প্রশিক্ষণ, কর্মশালা যথাসম্ভব অনলাইনে আয়োজনের ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে। কর্মক্ষেত্রে প্রবেশ ও অবস্থানের সময় বাধ্যতামূলকভাবে স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে। সব ধরনের জনসমাগম সীমিত করতে হবে। বিদেশ ফেরত কর্মকর্তাদের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত বা তার সংস্পর্শে আসাদের কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে।
সূত্র : বাসস

বৈশাখী নিউজজেপা