গাড়ি নয়, বিমান ঠেললেন যাত্রীরা

রানওয়েতে অবতরণের পর বিমানের টায়ার ফেটে বিপত্তি! অগত্যা সিটবেল্ট খুলে রানওয়েতে নেমে বিমান ঠেলায় হাত লাগালেন যাত্রীরাই। এমন অস্বাভাবিক দৃশ্য যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বুধবার (২ ডিসেম্বর) নেপালের কোল্টির বাজুরা বিমানবন্দরে এই ঘটনা ঘটে। চাঞ্চল্যকর এই দৃশ্যের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্লাটফর্মে ছড়িয়ে পড়েছে। এরপরই ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও।

নেপালের বাজুরা বিমানবন্দরে অবতরণের সময় দেশটির এয়ারলাইন্স তারা এয়ার’র ওই বিমানের পেছনের একটি টায়ার ফেটে যায়। অবশ্য কোনো দুর্ঘটনা বা ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াই বিমানটি রানওয়েতে থেমে যায়। এরপরই ঘটে বিপত্তি।

পেছনের একটি টায়ার ফেটে যাওয়ার কারণে বিমানটিকে রানওয়ে থেকে কোনোভাবেই সরানো যাচ্ছিল না। এদিকে রানওয়ে আটকে থাকায় অন্য বিমানের অবতরণেও সৃষ্টি হয় অচলাবস্থার। অগত্যা বিমানবন্দরের নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে রানওয়ে থেকে বিমান সরানোর কাজে হাত লাগান যাত্রীরাও। বাস বা ট্রাকের মতো ঠেলে ঠেলে বিমানটিকে রানওয়ে থেকে সরিয়ে নেয়া হয়।

চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে শেয়ার করেন বিমানবন্দরেই থাকা অপর ফ্লাইটের এক যাত্রী। এরপরই ওই ভিডিওটি ভাইরাল হয়। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে— বিমানের যাত্রী ও নিরাপত্তারক্ষীসহ প্রায় ২০ জনের একটি দল বিমানটিকে ঠেলছেন। একপর্যায়ে ঠেলে ঠেলে বিমানটিকে সরিয়ে নেন রানওয়ে থেকে।

নেপালের তারা এয়ার মূলত আরেক বিমান সংস্থা ইয়েতি এয়ারলাইন্সের সিস্টার কোম্পানি। ইয়েতি এয়ারলাইন্সের মুখপাত্র সুরেন্দ্র বারতাউল জানান, এয়ার ৯ এন – এভিই বিমানটি হুমলার সিমকোট বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়ন করে বাজুরা বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

অবতরণের সময়ই আচমকা ওই বিমানের টায়ার ফেটে যায়। অন্য একটি বিমান তখন রানওয়েতে অবতরণের জন্য তৈরি হচ্ছিল। কিন্তু এই ঘটনার কারণে সেই বিমানটিও অবতরণ করতে পারেনি।

এরপর বিমানটিকে রানওয়ে থেকে সরাতে অন্যান্য কর্মীদের সঙ্গে হাত লাগান যাত্রীরাও। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় কিছুক্ষণ পর তা সরিয়ে নিয়ে যেতে সক্ষম হন তারা। ওই বিমানটিকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার পর তার চাকা মেরামত করা হয়। এরপর অন্য বিমানটিও নিরাপদে অবতরণ করে।

তবে এই ঘটনার জেরে বেশ কিছুক্ষণ বিমান ওঠা নামা বন্ধ ছিল নেপালের ওই বিমানবন্দরে। সূত্র: এনডিটিভি

বৈশাখী নিউজ/ জেপা