টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হচ্ছে মাহমুদুল হাসান জয়ের

নিজের বিভাগীয় শহরে অভিষেকের খুব কাছাকাছি চলে গিয়েছিলেন মাহমুদুল হাসান জয়। তাকে সেভাবেই প্রস্তুত করা হচ্ছিল। কিন্তু টিম ম্যানেজমেন্ট সাইফ হাসানের ওপর রেখেছিল আস্থা। ঢাকা টেস্টে সাইফ নেই।

ওপেনিংয়ে প্রয়োজন ডানহাতি-বামহাতি কম্বিনেশন। সাদমান ইসলামের সঙ্গী হয়ে ঢাকায় ইনিংস উদ্বোধন করবেন জয়। বাংলাদেশের ৯৯তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হচ্ছে জয়ের। সবশেষ টেস্টে অভিষেক হয়েছিল ইয়াসির আলী রাব্বীর। সাকিব আল হাসান দলে ফেরায় সুযোগ হয়নি ইয়াসিরের।

ব্যাকআপ ওপেনার হিসেবে জয়কে চট্টগ্রাম টেস্টে নেওয়া হয়েছিল। যুব বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার বয়সভিত্তিক ও হাই পারফরম্যান্স ইউনিটের হয়ে দ্যুতি ছড়িয়ে জায়গা করে নেন জাতীয় দলের স্কোয়াডে। সঙ্গে এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে তার পারফরম্যান্স ছিল ঈর্ষণীয়। ২ সেঞ্চুরি ও ১ হাফ সেঞ্চুরিতে ৩৪৫ রান করেছেন। সর্বোচ্চ রান ১২১, গড় রান ৫৭.৫০। তবে পছন্দের পজিশন তিন ছেড়ে তাকে একধাপ উপরে আনা হচ্ছে।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি