যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ফ্লাইট বাতিলের হিড়িক

খারাপ আবহাওয়া ও শীতকালীন ঝড়ের কারণে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ফ্লাইট বাতিলের হিড়িক লেগেছে। ২ হাজার ৭০০-র বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে বলে রয়টার্সের খবরে বলা হয়।

দেশটির পূর্ব উপকূলে তীব্র বাতাস ও বরফের সমন্বয়ে শীতকালীন ঝড়ের আঘাতের আশঙ্কায় রোববার (১৬ জানুয়ারি) এসব ফ্লাইট বাতিল করা হয়।

ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ফ্লাইটঅ্যাওয়ার.কম-এর তথ্য অনুযাযী, স্থানীয় সময় রোববার সাড়ে ১২টা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ২ হাজার ৭০০-র বেশি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ, বহির্গমন এবং আভ্যন্তরীণ ফ্লাইটও রয়েছে। এছাড়া দেড় হাজারের বেশি ফ্লাইট নির্ধারিত শিডিউলের চেয়ে বিলম্বে যাত্রা শুরু করেছে বলেও পরিসংখ্যানে দেখা গেছে।

ফ্লাইটঅ্যাওয়ার ওয়েবসাইটের তথ্য বলছে, সবচেয়ে বেশি ফ্লাইট বাতিল করা এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে সবার ওপরে রয়েছে আমেরিকান এয়ারলাইন্স। রোববার এয়ারলাইন্সটি তাদের ছয় শতাধিক ফ্লাইট বাতিল করে।

নর্থ ক্যারোলিনার শার্লোট ডগলাস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরটি আমেরিকান এয়ারলাইন্সের অন্যতম কেন্দ্র বলে পরিচিত। রোববার এই বিমানবন্দরের নির্ধারিত প্রায় ৯৫ শতাংশ ফ্লাইটই বাতিল হয়ে গেছে। অবশ্য খারাপ আবহাওয়ার কারণে ফ্লাইট বাতিল হওয়ায় গ্রাহকদের বিনামূল্যে পুনরায় ফ্লাইট বুকিংয়ের সুযোগ দিচ্ছে আমেরিকান এয়ারলাইন্স।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, রোববার ও সোমবারজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলে বড় ধরনের শীতকালীন ঝড়ের আশঙ্কা রয়েছে। এসময় বেশ ভালো পরিমাণ তুষারপাত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

শীতকালীন এই ঝড়ের সময় ক্যারোলিনা অঞ্চলে সর্বোচ্চ তুষারপাতের আশঙ্কা করছে মার্কিন আবহাওয়া দফতর। এতে করে ওই অঞ্চলে যোগাযোগ ব্যবস্থার ওপর বড় ধরনের প্রভাব পড়তে পারে। এছাড়া স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় ৭ কোটি ৪০ লাখ মানুষের ওপর আবহাওয়া সতর্কতাও জারি করেছে সংস্থাটি।

পরে রোববার দেওয়া এক টুইট বার্তায়, দুর্যোগের পূর্বাভাস রয়েছে এমন এলাকায় অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ এড়িয়ে চলতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের গভর্নর ব্রিয়ান কেম্প। এছাড়া ঝড়ের কারণে নিজ নিজ অঙ্গরাজ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন জর্জিয়া, ভার্জিনিয়া, নর্থ ক্যারোলিনা এবং সাউথ ক্যারোলিনার গভর্নররা।

বৈশাখী নিউজ/ বিসি