‘একই সাইরেন বাজিয়ে নিজেদের হাসির পাত্র করবেন না’

‘সরকারের ভুলের সমালোচনা আপনারা অবশ্যই  করবেন। কিন্তু গৎবাঁধা সমালোচনা করে, প্রতিদিন একই সাইরেন বাজিয়ে নিজেদের হাসির পাত্র করবেন না।’

আজ শুক্রবার (৩১ মে) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে আলোচনাসভায় বিএনপিকে উদ্দেশ করে এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস ২০১৯’  উপলক্ষে মানস এ আলোচনাসভার আয়োজন করে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের দেওয়া বক্তব্য উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘গতকাল (বৃহস্পতিবার) মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, দেশ নাকি দুর্নীতি-দুঃশাসন, অপশাসনে নিমজ্জিত হয়েছে। আমি বলতে চাই, যদি সুশাসন না থাকতো, দেশ আজকে এত দূরে এগিয়ে যেত না। আজকে বাংলাদেশ স্বল্প আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। ১০ থেকে ১৫ লাখ টন চাল রফতানির লক্ষ্যমাত্রা আমরা এবছর স্থির করেছি।  সুশাসন আছে বলেই দেশ আজ উন্নত হয়েছে।’

বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবসের  এবারের প্রতিপাদ্য ‘তামাকে হয় ফুসফুস ক্ষয়,সুস্বাস্থ্য কাম্য তামাক নয়।’ তামাকের ভয়াবহতা তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য রয়েছে দেশকে উন্নত জাতি হিসেবে গঠন করার। উন্নত জাতি গঠন করতে হলে সেখানে অনেকগুলো কম্পোনেন্টকে সমন্বিত করতে হয়।  আর এর অন্যতম  প্রধান কম্পোনেন্ট হচ্ছে অধূমপায়ী জাতি গঠন করা।’

তিনি  বলেন, ‘বাংলাদেশে ধূমপান উল্লেখযোগ্য হারে কমে এসেছে। সারা পৃথিবীতে এটা না থাকাই প্রয়োজন। এখন যে বিধি-নিষেধগুলো সরকারের পক্ষ থেকে আরোপ করা হয়েছে এবং প্রকাশ্যে ধূমপান করলে তার জন্য যে শাস্তির বিধান করা হয়েছে, সেজন্যই ধূমপানের ব্যবহার কমেছে। ধূমপান শূন্যের কোঠায় নিয়ে আসতে পারলে দেশের জন্য ভালো।’

আলোচনাসভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব জাফর উদ্দিন, সংসদ সদস্য ও অভিনেতা  ফারুখ পাঠান এবং মানস এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক ড. অরূপ রতন চৌধুরী প্রমুখ।