জয়পুরহাটে জেলা পর্যায়ে যুব গোষ্ঠীর মধ্যে যোগসূত্র ও শিখন বিষয়ক সভা

জয়পুরহাট প্রতিনিধি: জয়পুরহাটে কিশোর কিশোরীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ব্র্যাকের সামাজিক ক্ষমতায়ন এবং আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি (সেল্প)’র  অধিকার এখানে, এখনই(আরএইচআরএন-2) প্রকল্পের  উদ্যোগে সকালে স্থানীয় চাইনিজ রেষ্টুরেন্ট স্বপ্নছ্য়াা কমিউনিটি সেন্টারে জয়পুরহাট জেলায় জেলা  পর্যায়ে যুব গোষ্ঠীর মধ্যে যোগসূত্র ও শিখন বিষয়ে Linking & learning সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় মাঠ পর্যায়ে ইয়ুথদের কাজের অভিজ্ঞতা বিনিময়, লার্ণিং শেয়ারিং, চ্যালেঞ্জ ও উত্তোরণে করনীয় এবং Best Practice নিয়ে আলোচনা হয় যাতে ইয়ুথদের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক উন্নয়ন, সহযোগিতা বৃদ্ধি ও অংশগ্রহনকারীদের কাজের ক্ষেত্রে উৎসাহ তৈরি হয়।

এতে করে নতুন নতুন উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন সহজ হবে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সমন্বিত যৌনতা শিক্ষা (CSE) পাঠদান এবং কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবার অনুকুল পরিবেশ তৈরিতে এ্যাডভোকেসির ক্ষেত্রে ভূ’মিকা পালন করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে ইয়ুথ সদস্য আয়েশা আক্তার এর  সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তোফাজ্জল হোসেন, পিএমইল কো-অর্ডিনেটর নভেরা আনোয়ার, মেডিকেল অফিসার ডা: যারিন তাসনিম,ব্র্যাক জেলা সমন্বয়কারী আরিফুল ইসলাম, সভার উদ্দেশ্য বর্ণনাসহ সভা পরিচালনা করেন ব্র্যাক অধিকার এখানে, এখনই (আরএইচআরএন-২) প্রকল্পের এরিয়া কো-অর্ডিনেটর মাধুরী সূত্রধর।

অনুষ্ঠানে কার্টুন প্রদর্শন,সমন্বিত যৌনতা শিক্ষা ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ক বর্তমান পরিস্থিতি আলোচনা এবং সংলাপ সেশন পরিচালনা করেন জেলা যুব সংগঠক মুর্শিদা খাতুন।

এরিয়া কো-অর্ডিনেটর মাধুরী সূত্রধর জানান সভায় বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট ও এসআরএইচআর, প্রকল্পের পরিচিতি প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য,প্রকল্পের প্রত্যাশিত ফলাফল উপস্থাপন করা হয় এবং রিসোর্স পারসনদের বক্তব্যে যুব প্রতিনিধিগণের মধ্যে দক্ষতা বৃদ্ধি পেয়েছে এবং কাজের ক্ষেত্রে উৎসাহী হয়েছেন।

এর ফলে গ্রুপ ওয়ার্কের মাধ্যমে নতুন নতুন উদ্যোগ গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন কৌশল নির্ধারণ ও কর্ম-পরিকল্পনা তৈরি সহজ হয়েছে।

সভায় যুব প্রতিনিধিগণ তাদের বক্তব্যে বলেন যে, আমরা আমাদের প্রকল্পের উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে অগ্রণী ভ’মিকা পালন করব।

সভায় বক্তারা বলেন যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার সম্পর্কে যে কোন চিকিৎসা প্রদানে আমরা অঙ্গিকার বদ্ধ  এবং অভিভাবক সভায়  যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার সম্পর্কে  আলোচনা করা উচিত।

বিদ্যালয়ে স্যানিটারি প্যাড সরবরাহ করার জন্য শিক্ষকদের সাথে আলোচনা করার কথা জানান।

জেলা পর্যায়ের এই সভায়  জেলার  ০৬টি ইয়ুথ গ্রুপে মোট ৬০জন যুব প্রতিনিধি অংশগ্রহন করেন।