প্লাজমা পরীক্ষায় ৭৬ শতাংশ রোগীর উন্নতি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে

যুক্তরাষ্ট্রের হোস্টন মেথোডিস্ট হসপিটালের গবেষকরা বলছেন- করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ ব্যক্তিদের শরীর থেকে প্লাজমা নিয়ে আক্রান্তদের দেওয়া একেবারে নিরাপদ এবং যারা উপসর্গহীন আক্রান্ত, তাদের জন্যও এটি কাজের।

২৫ জন রোগীর শরীরে প্লাজমা দেওয়ার পর ১৯ জনের অবস্থার উন্নতি ঘটেছে। এর মধ্যে ১১ জনকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

এটিই যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো করোনা রোগীর শরীরে প্লাজমা দিয়ে চালানো পরীক্ষা। প্লাজমা দেওয়ার ফলে কোনো রোগীর শরীরেই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি।

গবেষক ডা. জেমস এম. মুস্সার বলেছেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসার কোনো ওষুধ কিংবা টিকা ছাড়াই অন্য পদ্ধতি অবলম্বন করে আমাদের এগিয়ে যাওয়ার সময় এখন।

তিনি আরো বলেনو ১০১৮ সালে স্প্যানিশ ফ্লু যখন ছড়িয়ে পড়েছিল, তখনো এভাবে প্লাজমা চিকিৎসা দেওয়া হয়েছিল। সাম্প্রতিককালের ২০০৩ সালে সার্স মহামারির সময়ও এভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

সূত্র : স্টাডি ফাইন্ডস

বৈশাখী নিউজইডি