কেজরিওয়ালের হুশিয়ারি রোগী ফেরালে কঠিন ব্যবস্থা

সময়: 2:16 pm - June 7, 2020 | | পঠিত হয়েছে: 3 বার

করোনা উপসর্গ নিয়ে আসা রোগীদের ফেরানো যাবে না। কম শয্যার অজুহাতে রোগী ভর্তি না করলে হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেবে সরকার। শনিবার এই ভাষাতেই হাসপাতালগুলোকে সতর্ক করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এ বিষয়ে বিস্তর চর্চা হয়েছে। অভিযোগ, সংক্রমণ উপসর্গ নিয়ে যারা চিকিৎসাধীন হতে চাইছেন, তাদের ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। যারা ভর্তি আছের তাদেরও সেভাবে যত্ন করা হচ্ছে না। সেই অভিযোগগুলোকে গুরুত্বসহকারে বিচার করে এদিন সরব হলেন কেজরিওয়াল।

স্পষ্ট কথায় বলে দিলেন, এভাবে অসাধু উদ্দেশ্য যারা চরিতার্থ করছেন, তাদের ছাড় দেয়া হবে না।

কয়েক দিন ধরেই অভিযোগ উঠছিল, উপসর্গ থাকা রোগীদের ফিরিয়ে দিচ্ছে দিল্লির বিভিন্ন হাসপাতাল। এ ব্যাপারে দিল্লির গোটা স্বাস্থ্যব্যবস্থা নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছিলেন অনেকে। সূত্র:এনডিটিভি।

সেইসঙ্গে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল, তাহলে কি আক্রান্তের সংখ্যা এতটাই বেড়ে গেছে যে হাসপাতালে বেড নেই? সাংবাদিক বৈঠকে এদিন বেডের অভাবের বিষয়টিও উড়িয়ে দিয়েছেন কেজরিওয়াল। তার কথায়, এখনও দিল্লিতে বেডের অভাব নেই।

তিনি বলেন, ‘দিল্লির কিছু হাসপাতাল দুষ্টুমি করছে। তাদের কাউকে ছাড়া হবে না।’

হাসপাতালগুলোকে সতর্ক করে দিয়ে কেজরিওয়াল বলেন, ‘কিছু হাসপাতাল কোভিড উপসর্গ থাকা রোগীদের ভর্তি নিতে অস্বীকার করছে। আমি তাদের সতর্ক করে দিতে চাই। প্রভাব খাটিয়ে বেড নিয়ে কালোবাজারি করা যাবে না। সেটা হলে কাউকে ছাড়া হবে না।’

বেড নিয়ে কালোবাজারি রুখতে দিল্লি সরকার মোবাইল অ্যাপ আনছে বলেও জানান কেজরিওয়াল। যাতে কত বেড, ভেন্টিলেটর, আইসিইউ খালি তার স্বচ্ছ হিসাব থাকে।

গতকালই দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন অভিযোগ করেছিলেন, দিল্লির বেশ কিছু হাসপাতাল তথ্যের আপডেট জানাচ্ছে না। ওই অ্যাপসের মাধ্যমে এই মুহূর্তে কোন হাসপাতালে কত বেড খালি তা দেখা যাবে।

বৈশাখী নিউজজেপা

Share Now

এই বিভাগের আরও খবর