মেসির রেকর্ডের রাতে বার্সার দুর্দান্ত জয়

নতুন ইতিহাস গড়লেন লিওনেল মেসি। ক্লাব ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৭৬৮ ম্যাচ খেলে ইতিহাসে নাম লেখান আর্জেন্টাইন তারকা। এমন রেকর্ডের রাতে জোড়া গোল করেন মেসি ও সার্জিনো ডেস্ট। তাতে রিয়াল সোসিয়েদাদের জালে গোল উৎসব করেই জিতলো রোনাল্ড কোম্যানের দল। এই জয়ে রিয়াল মাদ্রিদকে টপকে পয়েন্টের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলো বার্সেলোনা।

স্প্যানিশ লা লিগায় রোববার (২১ মার্চ) রাতে সোসিয়েদাদের বিপক্ষে ৬-১ গোলের জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। লিওনেল মেসি ও সার্জিনো ডেস্টের জোড়া গোল ছাড়াও একটি করে গোল করেছেন আঁতোয়ান গ্রিজমান ও ওসমানে দেম্বেলে।

গত সোমবার ওয়েস্কার বিপক্ষে নেমে ক্লাবের ইতিহাসে চাভি এরনান্দেসের সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড স্পর্শ করেছিলেন মেসি। আর রোববার সোসিয়েদাদের বিপক্ষে নেমে ৭৬৮ ম্যাচ খেলার রেকর্ডটি নিজের করে নিলেন ৬ বারের বর্ষসেরা ফুটবলার।

সোসিয়েদাদের বিপক্ষে বার্সেলোনার গোল উৎসবের সূচনা করেন গ্রিজমান। ৩৭তম মিনিটে তিনি গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। বিরতিতে যাওয়ার আগে ৪৩তম মিনিটে ডেস্ট গোলের দেখা পান। তাতে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় কাতালানরা।

বিরতি থেকে ফিরে ৫৩ মিনিটে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন ডেস্ট। তাতে বার্সেলোনা এগিয়ে যায় ৩-০ ব্যবধানে। ৫৬ মিনিটে মেসি তার প্রথম গোলটি করেন। ব্যবধান হয় ৪-০। ৭১ মিনিটে ওসমানে দেম্বেলে গোল পেলে বার্সা এগিয়ে যায় ৫-০ ব্যবধানে।

৭৭ মিনিটে সোসিয়েদাদের আন্দের বারেনেক্সিয়া গোল করে ব্যবধান কমান। ম্যাচের শেষ মুহূর্তে ৮৯তম মিনিটে লিওনেল মেসি তার জোড়া গোল পূর্ণ করলে ৬-১ ব্যবধানের বড় জয় পায় রোনাল্ড কোম্যানের দল।

আসরে এ নিয়ে টানা ১৮ ম্যাচ অপরাজিত রইলো বার্সেলোনা। গত ৫ ডিসেম্বরের পর আর হারেনি তারা। এই সময়ে তাদের জয় ১৫টি, ড্র তিনটি।

এই জয় ২৮ ম্যাচ থেকে ৬২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচ থেকে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল আছে তৃতীয় স্থানে। আর ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ আছে শীর্ষে।

উল্লেখ্য, এই রাতে লুইস সুয়ারেজের গোলে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ১-০ গোলে হারিয়েছে আলাভেজকে।

বৈশাখী নিউজজেপা