জোড়া সেঞ্চুরিতে রান পাহাড়ে নিউজিল্যান্ড

ইনিংসের শেষ বলে ২ রান নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম শতকের দেখা পেলেন ডেরিল মিচেল। যদিও ৯৯ রানে তাকে থামানোর সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ। তবে মুশফিকের ভুলে এই যাত্রায় রেহায় পান তিনি।

একইসাথে ৬ উইকেটে ৩১৮ রান করে থামে কিউইদের ইনিংস। এই মাঠে এত রান তাড়া করে এর আগে জেতেনি কেউ। যার ফলে রীতিমত রেকর্ড গড়ে জিততে হবে তামিমদের।

এর আগে শতক হাঁকানো কনওয়েকে থামান মুস্তাফিজ। ব্যক্তিগত ১১৭ রানে ফিজের বলে বদলি খেলোয়াড় আফিফের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন তিনি। ১১০ বল মোকাবেলায় ১৭ চারে এই রান করেন কনওয়ে।

কনওয়ের প্রথম ওয়ানডে শতক ও ডেরিল মিচেলের শতকে ওই পাহাড়সম স্কোর গড়লেও নিউজিল্যান্ডের শুরুটা কিন্তু এমন সমৃদ্ধ ছিল না। ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে সকালে টস জিতে বাংলাদেশকে ফিল্ডিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় কিউইরা।

ব্যাট করতে নেমে শুরুতে টাইগার পেসারদের তোপের মুখে পড়লেও সময়ের সঙ্গে মানিয়ে নিয়েছে কিউই ব্যাটসম্যানরা। ওপেনার হ্যানরি নিকলসকে ১৮ (২১) রানে ফেরান তাসকিন আহমেদ। সিরিজে প্রথম খেলতে নামা রুবেল হোসেন আঘাত হানেন ইনিংসের নবম ওভারে। মিড অনে খেলতে গিয়ে মার্টিন গাপটিল ২৬ (২৮) রানে ক্যাচ দেন লিটন দাসের হাতে।

গত দুই ম্যাচে না খেলা রস টেইলর এই ম্যাচে মাত্র ৭ রান করে বিদায় হয়েছেন সেই রুবেলের বলে ক্যাচ দিয়েই। এরপর আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান অধিনায়ক টম লাথামকে ১৮ রানে সাজঘরে ফেরান সৌম্য সরকার।

আর এতেই ১২০ রানেই ৪ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচ যখন বাংলাদেশের পক্ষে, তখনই ঢাল হয়ে দাঁড়ান ডেভন কনওয়ে ও ড্যারেল মিচেল। দুইজনের ১৫৯ রানের অনবদ্য জুটি, এর মাঝে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ম্যাচেই সেঞ্চুরি তুলে নেন কনওয়ে। দুইজনের জুটি ভাঙে ৪৮তম ওভারে গিয়ে মোস্তাফিজের বলে কনওয়ের ১২৬ (১১০) রানে বিদায়ে।

তবে মিচেল খেলেছেন হাত খুলে। যেমন খুশি তেমন করে। ৯৮ বলে সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে বাংলাদেশকে হতাশায় ভাসিয়ে দলের স্কোরে জমা করেছেন ৬ উইকেটে ৩১৮ রান। বাংলাদেশের রুবেল হোসেন ৩টি ও ১টি করে উইকেট নিয়েছেন মোস্তাফিজ, তাসকিন এবং সৌম্য।

এর আগে প্রথম দুই ওয়ানডে জিতে ইতোমধ্যে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে কিউইরা। যার ফলে সিরিজের শেষ ম্যাচটি পরিণত হয়েছে কেবলই নিয়মরক্ষার ম্যাচে। আর এই ম্যাচে দুই দলের একাদশেই এসেছে একটি করে পরিবর্তন। হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরেছেন রস টেলর। একাদশে তাকে জায়গা করে দিতে বাইরে ছিটকে যেতে হলো উইল ইয়ংকে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ একাদশেও এসেছে একটি পরিবর্তন। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে খেলা অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বদলে সফরকারীদের একাদশে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন পেসার রুবেল হোসেন।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকোলস , ডেভন কনওয়ে, রস টেলর, টম ল্যাথাম (অধিনায়ক এবং উইকেটরক্ষক), জেমস নিশাম, ড্যারিল মিচেল, মিচেল সান্টনার, কাইল জেমিসন, ম্যাট হেনরি এবং ট্রেন্ট বোল্ট।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ , মেহেদী হাসান, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান এবং রুবেল হোসেন।

বৈশাখী নিউজজেপা