নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে সমতা চায় বাংলাদেশ

হার দিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজ শুরু করেছে বাংলাদেশ। ব্যাটসম্যান-বোলারদের ব্যর্থতা টি-২০ ফরম্যাটেও ফুঁটে উঠে। এতে ৬৬ রানের জয়ে সিরিজে এখন ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড।

তবে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুড়ে দাঁড়াতে চায় বাংলাদেশ। সিরিজে সমতা আনতে জয় ছাড়া কিছুই ভাবছে না টাইগাররা।

আগামীকাল নেপিয়ারের ম্যাকলিন পার্কে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টায় । বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি), গাজী টেলিভিশন ও টি-স্পোর্টস সরাসরি ম্যাচটি সম্প্রচার করবে।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর, টি-২০ ফরম্যাটে ভালো করার ব্যাপারে আশাবাদি ছিলো বাংলাদেশ। কারণ টি-২০ ফরম্যাটে বড় দল-ছোট দলের মধ্যে খুব বেশি পার্থক্য থাকে না। কিন্তু টি-২০ ফরম্যাটেও নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারেনি বাংলাদেশ।

হ্যামিল্টনে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে নিউজিল্যান্ড। ডেভন কনওয়ে ও উইল ইয়ংএর ব্যাটিং দৃঢ়তায় ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ২১০ রানের পুঁজি পায় কিউইরা। কনওয়ে ৫২ বলে ১১টি চার ও ৩টি ছক্কায় অপরাজিত ৯২ রান করেন। ৩০ বলে ২টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৫৩ রান করেন অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা ইয়ং।

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে নজর কেড়েছেন বাংলাদেশের বাঁ-হাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ। নিউজিল্যান্ড ইনিংসের প্রথম ওভারে আক্রমনে এসেই উইকেট তুলে নেন নাসুম। পরবর্তীতে আরো একটি উইকেটও নেন তিনি। ফলে ম্যাচে ৪ ওভারে ৩০ রানে ২ উইকেট নেন নাসুম।

২১১ রানের বিশাল টার্গেট স্পর্শ করতে গিয়ে নিউজিল্যান্ডের স্পিনার ইশ সোধির ঘুর্ণিতে পড়ে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। সৌম্য সরকার ৫, মোহাম্মদ মিঠুন ৪, অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১১ ও মাহেদি হাসান শুন্য রান করে সোধির শিকার হন। এতে ৭ দশমিক ৫ ওভারে ৫৯ রানে ষষ্ঠ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ফলে দ্রুত গুটিয়ে যাবার শংকায় পড়ে টাইগাররা।

শেষ পর্যন্ত আফিফ হোসেনের ৪৫ ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের অপরাজিত ৩৪ রানে বড় হারের লজ্জা থেকে রক্ষা পায় বাংলাদেশ। ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৪ রান করে বাংলাদেশ।

ম্যাচ হারলেও, দলের পারফরমেন্সে সন্তুষ্ট ছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, দলের মধ্যে ইতিবাচক মনোভাব দেখে আমার ভালো লেগেছে। আমি মনে করি, আমাদের ভালো সুযোগ ছিলো। আমরা শুরুতে উইকেট নিয়েছি এবং তাদের রান রেট সাতের নিচে রেখেছি। তবে ডেভন যেভাবে ব্যাটিং করেছিল, সে ম্যাচটি নিজেদের নিয়ন্ত্রনে নিয়েছিলো। দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন এবং আমাদের কোনো সুযোগ দেননি তিনি।

মাহমুদউল্লাহ আরো বলেন, আমাদের বোলাররা ভাল বোলিং করেছে, তাই আমি তাদের দোষ দিতে পারি না। আমাদের কিছু মিস ফিল্ডিং হয়েছে। যেগুলো বাউন্ডারি হয়েছে। আমরা যদি তাদের ১৯০তে আটকে রাখতে পারতাম, তবে রান তাড়া করতে পারতাম। তবে আমরা ব্যাটিংয়ে শুরুতে উইকেট হারিয়েছি, যা আমাদের সহায়তা করতে পারেনি, তবে দুর্ভাগ্যক্রমে আমাদের ব্যাটিং এমনটি বারবার ঘটছে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টি-২০তে ৮ ম্যাচ খেলে এখনো জয়হীন বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে এখনো কোন ফরম্যাটেই জয় পায়নি বাংলাদেশ। এই সফরে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ ও প্রথম টি-২০তে হারের ফলে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে বাংলাদেশের হার এখন ৩০টি ম্যাচে (১৬টি ওয়ানডে, ৯টি টেস্ট ও ৫টি টি-২০)।

মাহমুদউল্লাহ বলেন, আমরা জানি, নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশন আমাদের জন্য সবসময়ই চ্যালেঞ্জিং। আমরা যদি ভয়ডরহীন ক্রিকেট খেলতে পারি, তবে ম্যাচের ফলাফল আমাদের পক্ষে আসবে। আমি বিশ্বাস করি, আমাদের এখানে জয়ের ক্ষুধা রয়েছে। আমরা জয়ের জন্য মুখিয়ে আছি। আশা করি, আমরা সেরা ক্রিকেট খেলতে পারবো।

বৈশাখী নিউজজেপা