রায়হান হত্যা : এসআই আকবরকে প্রধান অভিযুক্ত করে চার্জশিট আজ

সিলেট মহানগর পুলিশের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে নির্যাতন করে যুবক রায়হান আহমদকে হত্যা মামলার সাত মাসের মাথায় আজ বুধবার আদালতে চার্জশিট দেওয়া হচ্ছে। এতে প্রধান অভিযুক্ত করা হয়েছে ওই ফাঁড়ির তৎকালীন ইনচার্জ এসআই আকবরকে। এ ছাড়া চার্জশিটে একজন কথিত সাংবাদিক ছাড়াও ছয়-সাতজন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যকে অভিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মামলার তদন্তকারী সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এ বিষয়ে আজ দুপুরে নিজ কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিং করবে।

পিবিআই সিলেটের পুলিশ সুপার মো. খালেদুজ্জামান জানিয়েছেন, আজ আদালতে চার্জশিট জমা দিয়ে প্রেস ব্রিফিং করা হবে। তখন বিস্তারিত তুলে ধরা হবে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১১ অক্টোবর রাতে নগরীর কাষ্টগড় এলাকা থেকে তুলে নিয়ে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে হত্যা করা হয় রায়হানকে। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ছিনতাই করতে গিয়ে গণপিটুনিতে রায়হান মারা গেছেন।

পরে পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুর অভিযোগে ১২ অক্টোবর তার স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নী বাদী হয়ে সিলেট কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা করেন। এ ঘটনায় বিভিন্ন পর্যায়ে একজন ইন্সপেক্টরসহ ৯ জনকে বরখাস্ত করা হয়।

মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া ছয়জন বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। তারা হলেন- বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির তৎকালীন ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়া, টুআইসি এসআই হাসান আলী, এএসআই আশেক ই এলাহী, কনস্টেবল হারুনুর রশিদ, কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাস ও ছিনতাইয়ের অভিযোগকারী সাইদুর শেখ।

এই আসামিরা ছাড়াও এসআই আকবরকে পালাতে সহায়তাকারী কথিত সাংবাদিক আব্দুল্লাহ আল মামুনকেও চার্জশিটভুক্ত করা হয়েছে।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি