যেভাবে কাটছে আরিয়ানের হাজতবাস

জামিন পাননি আরিয়ান খান। আপাতত জেলের রুদ্ধদ্বার কক্ষেই দিন কাটবে তার। তারকা সন্তান বলে কোনও রকম বিশেষ সুজোগ নেই তার জন্য। আর পাঁচ জন হাজতবাসীর মতোই থাকবেন ‘কিং খান’ পুত্র।

বর্তমানে আর্থার রোড জেলে আছেন আরিয়ান। অভিযুক্তদের জন্য কি কি নিয়ম চালু আছে এখানে চলুন জেনে নেয়া যাক-

প্রতিদিন ঘড়ি ধরে ঠিক ৬টায় ঘুম থেকে উঠিয়ে দেওয়া হয় প্রত্যেক অভিযুক্তকে।

সকালের খাবার দেওয়া হয় ঠিক ৭টায়।

জেলে যা রান্না হয়, তা-ই খেতেহবে। বাইরের খাবার নিষিদ্ধ। তবে বরাদ্দ খাবারের বাইরে ক্যান্টিন থেকে আরও খাবার চাইলে টাকা দিতে হবে। মানি অর্ডারের মাধ্যমে সেই টাকা আনানো যেতে পারে।

বেলা ১১টার মধ্যে দুপুরের খাবার খেতে হবে।

দুপুর এবং রাতের খাবারের তালিকায় থাকবে রুটি, তরকারি, ডাল এবং ভাত। এর বাইরে আর কিছুই দেওয়া হবে না হাজতবাসীদের।

খাওয়াদাওয়ার পর জেলের ভিতরেই হাজতবাসীদের হাটাচলা করতে দেওয়া হয়। কিন্তু আরিয়ান ও তার সঙ্গীদের ক্ষেত্রে এখনও সেই নিয়ম প্রযোজ্য নয়। তিন থেকে পাঁচ দিন হাজতবাসে থাকার পর জেলের মধ্যে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ঘোরাফেরা করতে পারবেন তারা।

সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে আবার রাতের খাবার দিয়ে দেওয়া হবে।

‘মন্নত’ ছেড়ে আপাতত এভাবেই সাদামাটা দিন কাটাতে হবে আরিয়ানকে। প্রমোদতরীর সেই পার্টি জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিল শাহরুখ-পুত্রের। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

বৈশাখী নিউজ/ জেপা