ছাত্রীদের অভিযোগ স্বীকার করলেন অভিনেতা ফ্র্যাঙ্কো

অবশেষে নিজের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন হলিউড অভিনেতা জেমস ফ্র্যাঙ্কো।স্টুডিও ফোর নামক ফিল্ম স্কুলের ছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছেন এই হলিউড অভিনেতা। ফ্র্যাঙ্কো ওই স্কুলের শিক্ষক ছিলেন।

২০১৮ সালে পাঁচ নারী জেমসের বিরুদ্ধে অসদাচরণ এবং যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তোলেন। অভিযোগকারীদের মধ্যে চারজনই ছিলেন জেমসের ফিল্ম স্কুলের ছাত্রী। ২০১৯ সালে সেই ছাত্রীদের দু’জন জেমসের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেন। অভিযোগ, জেমস এবং তার সহকারীরা ছাত্রীদের শেখানোর নামে ‘সুযোগ’ নেয়ার জন্যই ওই প্রতিষ্ঠানটি চালু করেন।

জেমস অভিযোগ মেনে নিয়ে বলেছেন, ‘‘আমি আমার ছাত্রীদের সঙ্গে সহবাস করেছি। সে কথা স্বীকার করে নিচ্ছি। তবে যারা অভিযোগ করেছেন, তাদের ক্লাসের কারও সঙ্গে আমি সহবাসে লিপ্ত হইনি। কিন্তু যত দিন অভিনয় শিখিয়েছি, তত দিন অনেক ছাত্রীর সঙ্গেই যৌন সম্পর্ক করেছি। সেটা করা উচিত হয়নি।’’

জেমস ফ্র্যাঙ্কো হলিউডের বহু বিখ্যাত সিনেমাতে অভিনয় করেছেন, কিন্তু দর্শক তাকে সবচেয়ে বেশি মনে রেখেছেন ‘স্পাইডার ম্যান ট্রিলজি’ এবং ‘ওয়ান টোয়েন্টি সেভেন আওয়ার্স’ সিনেমার জন্য। এই দ্বিতীয় সিনেমার জন্য সেরা অভিনেতার অস্কার-নমিনেশনও পেয়েছিলেন তিনি। ‘মিল্ক’, ‘পাইনাপেল এক্সপ্রেস’, ‘ইট প্রে লাভ’, ‘রাইজ অফ দ্য প্ল্যানেট অফ দ্য এপস’ ইত্যাদি বহু বিখ্যাত সিনেমাতে তাকে দেখা গেছে।

অভিনয়ের পাশাপাশি ফিল্ম স্কুলেও শিক্ষকতা করতেন ফ্র্যাঙ্কো। সেখানকার ছাত্রীরাই তার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন। তবে অভিযোগ একা ফ্র্যাঙ্কোর বিরুদ্ধে নয়। স্কুলটিতে ফ্র্যাঙ্কোর আরও দু’জন অংশীদার ছিলেন। যে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে সেখানে বাকি দু’জনের দিকেও অভিযোগের আঙুল উঠছে।

ছাত্রীদের অভিযোগ, ওখানকার ক্লাসরুমেই মেয়েদের প্রতি এক ধরনের অবমাননাকর মনোভাব কাজ করত। অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন শোষণ এবং লাঞ্ছনার অভিযোগ জানিয়েছেন তার ছাত্রীরা। আইনি অভিযোগে তারা লিখেছেন যে, অনেক সময় পর্দায় অভিনয় প্রশিক্ষণের নামে এমন কিছু যৌন আচরণ তাদের করতে বলা হতো যা অপ্রয়োজনীয় এবং অত্যন্ত আপত্তিকর। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

বৈশাখী নিউজ/ বিসি