ইরানের ১৬টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বৈশ্বিক হুমকি : যুক্তরাজ্য

সামরিক মহড়ার শেষ দিনে একই সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের ১৬টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি। গতকাল শুক্রবার মহানবী (স)-১৭ নামের এই মহড়ার শেষদিনে ইরানি সেনারা দীর্ঘ, মধ্য ও স্বল্প পাল্লার এসব ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়। এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে যুক্তরাজ্য।

এক বিবৃতিতে এই কার্যক্রমকে আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে অবিহিত করেছে ব্রিটেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বলা হয়েছে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের রেজ্যুলেশন ২২৩১-এর সুস্পষ্ট লঙ্ঘন করেছে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের ঘটনা। ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি ব্যবহার করে উৎক্ষেপণসহ এ ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকা উচিত মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিকে।

এর আগে, শুক্রবার মহড়ায় ইমাদ, কাদর, সিজ্জিল, যিলযাল ও জুলফিকার নামের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়। এসব ক্ষেপণাস্ত্র শতভাগ নিখুঁতভাবে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানে এবং সেগুলো ধ্বংস করে।

একই দিনে ইরানের অ্যারোস্পেস ফোর্সের দশটি কমব্যাট ড্রোন একসঙ্গে বিভিন্ন অভিযানে অংশ নেয় এবং কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যবস্তু ধ্বংস করে।

এ বিষয়ে আইআরজিসি ডেপুটি চিফ অফ অপেরেশন্স এবং এই মহড়ার মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্বাস নিলফোরুশান। তিনি জানিয়েছেন, তার বাহিনীর এই মহড়া ইহুদিবাদী ইসরায়েলের জন্য সরাসরি সতর্ক বার্তা বহন করছে। পাশাপাশি ইরানের প্রতিবেশী এবং বন্ধুপ্রতিম দেশগুলোর জন্য শান্তির বার্তা রয়েছে। সূত্র : পার্সটুডে।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা