ব্যাকআপ ‘উইকেটকিপার’ হিসেবে ডাক পাচ্ছেন লিটন!

আগের দিন (বুধবার) নেটে ব্যাটিং অনুশীলন করতে গিয়ে ডান হাতের আঙুলে চোট পেয়েছেন মুশফিকুর রহীম। তার খেলা নিয়ে সংশয় নেই, জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তবে কিপিং করবেন কি না, তা নিয়ে রয়েছে রাজ্যের সংশয়।

যেহেতু বলের আঘাতটা হাতের আঙুলে, তাই কিপিং করায় খানিক অস্বস্তি থাকতেই পারে। খেলাটা টেস্ট, একদিনের নয়। ১০০ ওভারের বেশি এক এক ইনিংসে উইকেটকিপিং করতে হয়। কাজেই মুশফিকের বিকল্প উইকেটকিপার খোঁজা হচ্ছে।

যদিও দলে আছেন মোহাম্মদ মিঠুন। তবে টেস্টে স্পেশালিস্ট কিপার হিসেবে তার উপর আস্থা কম টিম ম্যানেজম্যান্টের। তাই বিকল্প কিপার হিসেবে ভাবা হচ্ছে লিটন দাসের কথা।

আজ সকাল সাড়ে ৯টায় শেরে বাংলায় বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্র্যাকটিস শুরুর আধ ঘন্টা পরই গুঞ্জন, ডাক পাচ্ছেন লিটন দাস। তার দল সেন্ট্রাল জোন বিসিএল খেলছে বগুড়ায়। শেরে বাংলায় জোর গুঞ্জন, লিটনকে ডেকে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, বিকল্প কিপার হিসেবে লিটনের কথা ভাবা হচ্ছে। কারণ মিঠুনের কিপিং সামর্থ্যের উপর টিম ম্যানেজম্যান্টের আস্থা কম। তবে লিটনকে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে দলের সদস্য করে নেয়া হয়নি। প্র্যাকটিস শেষে মুশফিকের সর্বশেষ অবস্থা দেখে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। টিম ম্যানেজম্যান্ট চাইলেই আমরা লিটনকে ডাকব।’

তবে সকাল ১১টা পর্যন্ত বিসিবি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না দিলেও ধরে নেয়া হচ্ছে, লিটন অন্তর্ভূক্ত হবেন। সেক্ষেত্রে একাদশে সুযোগ পেলে ওপেনিংয়ে নয়, সাত নাম্বারে ব্যাটিং করবেন তিনি।

সিরিজে বাংলাদেশ ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে। মিরপুর টেস্টে ড্র বা জয় পেলে সিরিজ নিজেদের করে নিতে পারবে টাইগাররা।