শিশুদের করোনা হওয়ার ঝুঁকি ‘অবিশ্বাস্যভাবে কম’, দাবি বিশেষজ্ঞের

সময়: 4:19 pm - May 21, 2020 | | পঠিত হয়েছে: 3 বার

করোনার মহামারির মধ্যেই আগামী মাস থেকে খুলতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্যের স্কুল। বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে নানা আলোচনা-সামলোচনা। কারণ করোনা এখনো নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি ব্রিটেন। তবে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞের মতে, বাচ্চাদের করোনা হওয়ার ঝুঁকি ‘অবিশ্বাস্যভাবে কম’। তথ্য বলছে স্কুল খুলা হলেও শিক্ষকদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম।

করোনা মহামারির মধ্যেই যুক্তরাজ্যের এক থেকে ১৩ বছর বয়সীদের স্কুল খুলার পরিকল্পনা নিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছেন বরিস জনসন। কমপক্ষে ১৩জন বিশেষজ্ঞ স্কুল খুলার বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করেছেন। তাদের ধারণা স্কুল খুলা হলে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাকরা করোনা আক্রান্তের ঝুঁকিতে পড়তে পারে।

ব্রিটেনের বিশিষ্ট পরিসংখ্যানবিদ ও কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর স্যার ডেভিড স্পিগেলহাল্টার এই বিষয়টি নিয়ে স্বস্তির খবর শুনিয়েছেন। তিনি জানান, তথ্য বলছে ব্রিটেনের চার থেকে ১৪ বছর বয়সী সাত মিলিয়ন শিশু-কিশোরের মধ্যে মাত্র একজন শিশু করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে।

ডেভিড স্পিগেলহাল্টার দাবি, প্রাপ্তবয়স্কদের তুলনায় ভাইরাল লোডের কেবল একটি ছোট অংশ বহন করতে পারে শিশুরা। যা তাদের অসুস্থ হওয়ার বা অন্যকে সংক্রমিত করার ক্ষমতা অনেকটাই কমিয়ে আনে। ব্রিটেনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মাত্র একজন শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

তিনি বলেন, মৃত্যুর সংখ্যা আরো কিছু হয়তো থাকবে (যা নিশ্চিত হওয়া যায়নি)। তবে এখনো বলা যায়, করোনায়  আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম রয়েছে। অবশ্যই আমাদের মনে রাখতে হবে এই গ্রুপের (১ থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশুদের গ্রুপ) বাচ্চারা অবিশ্বাস্যভাবে নিরাপদ। প্রতি বছর ১০ হাজারের মধ্যে একজনেরও কম শিশু মারা যায়। মানব ইতিহাসে এই গ্রুপের বাচ্চাদের চেয়ে আর কেউ নিরাপদ ছিল না।

শিশুদের মাধ্যমে শিক্ষক ও অভিভাকরা করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন কি-না এমন প্রশ্নের উত্তরে ডেভিড স্পিগেলহাল্টার সরাসরি নাই বলে দিয়েছেন। তিনি পেশা হিসেবে শিক্ষকদের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার কোনো ঝুঁকিই নেই বলে জানিয়েছেন। সূত্র: ডেইলি মেইল।

বৈশাখী নিউজজেপা

Share Now

এই বিভাগের আরও খবর