এফএ কাপের সেমিফাইনালে চেলসি

ছন্দহীন ফুটবলের ম্যাচে সৌভাগ্যসূচক গোলে এগিয়ে গেল চেলসি। দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবধান বাড়ালেন হাকিম জিয়াশ। ঘরের মাঠে শেফিল্ড ইউনাইটেডকে ২-০ গোলে হারিয়ে এফএ কাপের সেমিফাইনালে উঠল টমাস টুখেলের দল।

চেলসির ভীষণ বাজে সময়ের মধ্যে গত ২৭ জানুয়ারি দায়িত্ব নেন টুখেল। এর পর থেকে এখনো হারেনি দলটি। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এই নিয়ে ১৪ ম্যাচ অপরাজিত রইলো তারা, জয় ১০টি ও ড্র ৪টি। চেলসির ইতিহাসে নতুন কোচের হাত ধরে দলটি আছে অপরাজেয় পথচলার রেকর্ডে।

গত বুধবার আটলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে চ্যাস্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে ওঠা ম্যাচের একাদশে নয়টি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নামে চেলসি। বল দখলে আধিপত্য করলেও আক্রমণে সুবিধা করতে পারছিল না ২০১৭-১৮ আসরের চ্যাম্পিয়নরা।

ভাগ্যের সহায়তায় ২৪তম মিনিটে এগিয়ে যায় তারা। ম্যাসন মাউন্টের কর্নার বাম প্রান্তে ডি বক্সের বাইরে পেয়ে দূরের পোস্টে ক্রস করেন বেন চিলওয়েল। পা বাড়িয়ে ক্লিয়ার করতে গিয়ে বল নিজেদের জালে ঠেলে দেন শেফিল্ড মিডফিল্ডার অলিভার নরউড।

৪২তম মিনিটে প্রথম লক্ষ্যে শট রাখতে পারে চেলসি। এবারও নরউডের ভুলে বল পেয়ে যান অরক্ষিত ক্রিস্টিয়ান পুলিসিক। কিন্তু গোলরক্ষকে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি যুক্তরাষ্ট্রের এই ফরোয়ার্ড। ছুটে এসে তার শট রুখে দেন গোলরক্ষক অ্যারন রামসডেল।

বিরতি থেকে ফিরেই আবারও গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে হতাশ করেন পুলিসিক। একটু পর ক্যালাম হাডসন-ওডোইয়ের শট ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়। এলোমেলো ফুটবলে তেমন সুযোগ তৈরি করতে পারছিল না কোনো দলই। যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে রিয়ান ব্রুস্টারের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে হতাশা বাড়ে শেফিল্ডের।

পরের মিনিটেই পাল্টা আক্রমণে জালের দেখা পান জিয়াশ। ডান প্রান্ত থেকে চিলওয়েলের উঁচু পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাঁ পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন মরোক্কোর এই মিডফিল্ডার।

বৈশাখী নিউজজেপা