মোদিবিরোধী বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বায়তুল মোকাররম এলাকা রণক্ষেত্র

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিবিরোধী বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে সাধারণ মুসল্লিদের সঙ্গে  আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে।

এতে মুসল্লি, পথচারী, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীসহ  প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছেন।

সংঘর্ষের সময় ৬টি মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবার জুমার নামাজের মোনাজাত শেষে মুসল্লিদের একাংশ মোদিবিরোধী বিক্ষোভ শুরু করলে এ সংঘর্ষ বাধে।
মুসল্লিরা মোদিবিরোধী স্লোগান দেওয়ার কিছুক্ষণ পরই  মসজিদের উত্তর পাশের ফটকে মিছিলকারীদের ওপর লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালান হয়।

প্রায় পাঁচ মিনিট ধরে  মিছিলকারীদের মারধর করা হয়।। এতে বিক্ষোভকারীরা পিছু হটে মসজিদের ভেতরে ঢুকে পড়ে। কিছু সময় পর বিক্ষোভকারীরা পাল্টা হামলা চালায়।

এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া চলতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নিতে পুলিশ মসজিদের দিকে টিয়ার গ্যাস ও পুলিশ ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

বর্তমানে পুরো এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

এ রিপোর্ট লেখার সময় বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে একদল মুসল্লি বিক্ষোভ করছেন। তারা সফররত মোদির বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

বায়তুল মোকাররমের সংঘর্ষের ঘটনায় অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে পথচারী, মুসল্লি, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা রয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকেই চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া  জানান, মোদিবিরোধী বিক্ষোভে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

বৈশাখী নিউজ/ এপি