৬৬ রানে আফগানিস্তানকে হারিয়েছে ভারত

প্রথম দুই ম্যাচ হেরে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে যাওয়া নিয়ে শঙ্কা জেগেছে ভারতের। সমীকরণের মারপ্যাচে সুঁতোয় ঝুলে গেছে ভারতের শেষ চারে যাওয়ার সম্ভাবনা। সেই সমীকরণ মেলাতে শেষ তিন ম্যাচে ভারতের প্রয়োজন বড় বড় জয়।

সে যাত্রায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে বুধবার রাতে বড় জয় তুলে নিয়েছে তারা। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে ভারত এদিন আগে ব্যাট করে ২ উইকেট হারিয়ে ২১০ রানের বিশাল সংগ্রহ দাঁড় করে। যা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। জবাবে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৪ রানের বেশি করতে পারেনি আফগানিস্তান। ৬৬ রানের জয়ে পরের রাউন্ডে যাওয়ার আশা জিইয়ে রাখলো ভারত।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে বুধবার ভারতের ঝড়ো ইনিংসের শুরুটা করেছিলেন রোহিত শর্মা ও লোকেশ রাহুল জুটি। আর টর্নেডো গতিতে সেটা শেষ করেন ঋষভ পন্ত ও হার্দিক পান্ডিয়া। উদ্বোধনী জুটিতে রোহিত ও রাহুল বিধ্বংসী মেজাজে ১৪০ রান করেন। এরপর রোহিত ৪৭ বলে ৮টি চার ও ৩ ছক্কায় ৭৪ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলে করিম জানাতের বলে আউট হন। ১৪৭ রানের মাথায় গুলবাদিন নাইব ফেরান রাহুলকে। তিনি ৪৮ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ৬৯ করেন।

এরপর পন্ত ১৩ বলে ১ চার ৩ ছক্কায় অপরাজিত ২৭ ও হার্দিক ১৩ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় অপরাজিত ৩৫ রান করেন। তাতে ২১০ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় কোহলিবাহিনী।

২১০ রান তাড়া করে জিততে যেমন সূচনা দরকার ছিল আফগানিস্তানের তেমনটা হয়নি। টপ অর্ডারের ব্যাটসম্যানটা কেউ দলের হাল ধরতে পারেননি। হজরতুল্লাহ জাজাই ১৩, মোহাম্মদ শাহজাদ ০, রহমানুল্লাহ গুরবাজ ১৯, গুলবাদিন নাইব ১৮ ও নাজিবুল্লাহ জাদরান ১১ রান করে আউট হন। তাতে ৬৯ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে আফগানরা। শঙ্কা জাগে ১০০ রানের আগেই আউট হওয়ার।

কিন্তু মোহাম্মদ নবী ও করিম জানাতের ব্যাটে সেটা হয়নি। নবী ২ চার ও ১ ছক্কায় ৩২ বলে ৩৫ রান করেন। আর জানাত ২২ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৪২ রানে অপরাজিত থাকেন। তারা দুজন ষষ্ঠ উইকেটে তোলেন ৫৭ রান। তাতে ৭ উইকেট হারিয়ে আফগানিস্তান করতে পারে ১৪৪ রান। হার মানে ৬৬ রানে।

বল হাতে ভারতের মোহাম্মদ শামি ৩টি ও রবী চন্দ্রন অশ্বিন ২টি উইকেট নেন। ম্যাচসেরা হন রোহিত শর্মা।

এই জয়ে ভারতের ঝুলিতে প্রথম ২ পয়েন্ট যুক্ত হলো। ২ পয়েন্ট ও +০.০৭৩ নেট রানরেট নিয়ে ভারত আছে চতুর্থ স্থানে। ৪ পয়েন্ট করে নিয়ে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আছে যথাক্রমে আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ড। আফগানদের নেট রানরেট +১.৪৮১। ব্লাক ক্যাপসদের রানরেট +০.৮১৬।

নিউজিল্যান্ড যদি তাদের বাকি দুটি ম্যাচ নামিবিয়া ও আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিতে যায় তাহলে ভারতের সামনে সেমিফাইনালে যাওয়ার কোনও সুযোগ থাকবে না। তবে নিউজিল্যান্ড যদি শেষ দুই ম্যাচের কোনোটিতে হেরে যায় এবং ভারত তাদের শেষ দুই ম্যাচে নামিবিয়া ও স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে জয় পায় তাহলে সুযোগ থাকবে ভারতেরও।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি