লিনকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে চেলসি

ছন্দে থাকা চেলসি বুধবার শুরুতে নিজেদের ঠিক মেলে ধরতে পারেনি। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে দলটি ঘুরে দাঁড়ায় দারুণভাবে। তাইতো দুই অর্ধে দুই গোল করে আরও একবার লিনকে হারানোর স্বাদ দিয়ে দলটি দুই লেগে এগিয়ে থেকে উঠে গেল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটে।

বুধবার রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে ২-১ ব্যবধানে জিতে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-১ গোলের অগ্রগামিতায় শেষ আটে পা রাখে চেলসি। প্রথম লেগে ২-০ গোলে জিতেছিল টমাস টুখেলের দল।

প্রতিপক্ষের বুধবার প্রথমার্ধে ছন্দে ছিলো না চেলসি। এর খেসারত দলটি দেয় ম্যাচের ৩৮তম মিনিটে। সে সময়
সফল স্পট-কিকে লিলকে এগিয়ে নেন তুর্কির ফরোয়ার্ড বুরাক ইলমাজ। ডি-বক্সে চেলসির জর্জিনিয়োর হাতে বল লাগলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টিটি দিয়েছিলেন রেফারি। তৃতীয় বেশি বয়স্ক খেলোয়াড় হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে গোল করলেন ইলমাজ (৩৬ বছর ২৪৪ দিন)। তার চেয়ে বেশি বয়সে গোল করেছেন পাওলো মালদিনি (৩৬ বছর ৩৩৩ দিন) ও রায়ান গিগস (৩৭ বছর ১৪৮ দিন)

তবে বিরতির আগে চেলসি শিবিরে স্বস্তি এনে দেন ক্রিস্টিয়ান পুলিসিক। জর্জিনিয়োর থ্রু বল ডি-বক্সে পেয়ে প্রথম স্পর্শে দূরের পোস্ট দিয়ে গোলটি করেন তিনি। প্রথম লেগেও একটি গোল করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের এই মিডফিল্ডার।

বিরতির পর কোনভাবেই লিনকে সুযোগ দিচ্ছিলো না চেলসি। তারপর ম্যাচের ৬৫তম মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ পেয়েছিল লিন। কিন্তু গোলরক্ষকের দক্ষতার কারণে সে সময় বেঁচে যায় চেলসি। এদিকে ম্যাচের ৭১তম মিনিটে এগিয়ে যায় চেলসি। বাঁ দিক থেকে ম্যাসন মাউন্টের নিচু ক্রসে কাছ থেকে ভলিতে জাল খুঁজে নেন সেসার আসপিলিকুয়েতা। শেষ পর্যন্ত তাই জয় নিয়েই তারা উঠে যায় এ টুর্নামেন্টের শেষ আটে।

আরেক ম্যাচে জুভেন্টাসকে ৩-০ গোলে হারিয়ে দুই লেগ মিলিয়ে ৪-১ ব্যবধানে এগিয়ে শেষ আটে উঠেছে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল।