আফগানিস্তানে বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা

আফগানিস্তানে বিদেশি মুদ্রার ব্যবহারে সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তালেবান। আন্তর্জাতিক সমর্থন না পাওয়ায় এমনিতেই অর্থনীতি পতনের দ্বারপ্রান্তে দেশটি। ঠিক সেই মুহূর্তে এমন সিন্ধান্ত অর্থনীতি কাঠামোকে আরও দুর্বল করে দিবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

তালেবানের একজন মুখপাত্র সাংবাদিকদের দেওয়া একটি বিবৃতিতে বলেছেন “দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি এবং জাতীয় স্বার্থের প্রয়োজনে সমস্ত আফগান তাদের প্রতিটি বাণিজ্যে আফগান মুদ্রা ব্যবহার করবে।”

দীর্ঘদিন মার্কিনী নিয়ন্ত্রণে থাকার কারণে আফগানিস্তানে মার্কিন ডলারের ব্যবহার ব্যাপক, অন্যদিকে সীমান্ত এলাকায় বাণিজ্যের জন্য পাকিস্তানের মতো প্রতিবেশী দেশের মুদ্রার ব্যবহারও রয়েছে দেশটিতে।

একদিকে খরা প্রবণ এলাকা তার ওপরে নগদ অর্থের সংকট। এই অবস্থায় তালেবান সরকার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিলিয়ন ডলার রিজার্ভের মুক্তির জন্য চাপ দিচ্ছে।

আফগানিস্তান ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ এবং ইউরোপের অন্যান্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাথে বিদেশে বিলিয়ন ডলারের সম্পদ রেখেছিল । কিন্তু আগস্টে তালেবান পশ্চিমা-সমর্থিত সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর থেকে সেই অর্থ আর কোনও কাজেই ব্যবহার করতে পারছে না তালেবান সরকার।

যদিও পশ্চিমা শক্তিগুলো আফগানিস্তানে মানবিক বিপর্যয় এড়াতে চায়, কিন্তু অন্যদিকে তারা তালেবান সরকারকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দিতেও অস্বীকার করছে। এ অবস্থায় বিদেশি মূদ্রা নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত দেশটির অর্থনীতিকে আরও দুর্বল করে দিবে বলেই মনে করছেন বিশ্লেষকরা। সূত্রঃ রয়র্টাস

বৈশাখী নিউজ/ জেপা