মামুনুল হকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

হেফাজতে ইসলামের সাবেক নেতা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় অভিযোগ গঠন করেছে আদালত। গত ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁ থানায় ধর্ষণ মামলা করেন মামুনুলের ‘কথিত স্ত্রী’ জান্নাত আরা ঝর্ণা।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে অভিযোগ গঠন করেন নারায়ণগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আনিসুর রহমান।

নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু আদালতের রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী রকিবুদ্দিন আহমেদ ধর্ষণ মামলার অভিযোগ গঠনের আবেদন করেন।

তিনি জানান, ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁ থানায় ধর্ষণ মামলা করে জান্নাত আরা ঝর্ণা। ওই মামলায় গ্রেপ্তারকৃত মামুনুল হককে আজ আদালতে হাজির করা হলে তার বিরুদ্ধে চার্জ গঠনের জন্য আবেদন করা হয। শুনানি শেষে বিচারক আবেদন মঞ্জুর করে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

সকাল ১০টার দিকে তাকে কাশিমপুর কারাগার থেকে নারায়ণগঞ্জের আদালতে আনা হয়। আদালতের গারদ খানায় রাখা হয় মামুনুল হককে। পরে তাকে আদালতে তোলা হয়।

গত ৩ এপ্রিল সোনারগাঁয়ে রয়েল রিসোর্টের একটি কক্ষে এক নারীসহ স্থানীয়দের হাতে অবরুদ্ধ হন মামুনুল হক। সে সময় তিনি বিব্রতকর অবস্থায় পড়লে হেফাজতের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা তাকে উদ্ধার করতে এগিয়ে যায়। এরপর স্থানীয় আওয়ামী লীগের কার্যালয়, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বেপরোয়া ভাঙচুর চালায় তারা।

হামলা করা হয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে দুই শতাধিক যানবাহনেও।

সেদিন রিসোর্ট সঙ্গীনিকে মামুনুল দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করলেও তার দাবির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে। আর ১৮ এপ্রিল গ্রেপ্তারের পর ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁ থানায় মামুনুলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেন ঝর্ণা।

মামলায় তিনি অভিযোগ করেন, মামুনুল বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে গত দুই বছর ধরে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়েছেন। কিন্তু বিয়ে করবেন বলে আর করেননি।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা