বাবাকে ছাড়া ইরেশ যাকেরের বেদনার জন্মদিন

৬ নভেম্বর। একইদিনে বাবা নাট্যব্যক্তিত্ব আলী যাকের ও ছেলে ইরেশ যাকেরের জন্মদিন। প্রতি বছর বাবা-ছেলে কেক কেটে একসঙ্গে জন্মদিন পালন করতেন। কিন্তু এবার তার ব্যতিক্রম। বাবাকে ছাড়া এবার প্রথম বিষাদময় জন্মদিন পালন করছেন ইরেশ যাকের।

করোনা আক্রান্ত হয়ে ২০২০ সালের ২৭ নভেম্বর রাজধানীর একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন আলী যাকের। আগে থেকে ক্যান্সার আক্রান্তও ছিলেন তিনি।

নাট্যব্যক্তিত্ব আলী যাকের ১৯৪৪ সালের ৬ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। অভিনয়ের পাশাপাশি নিয়মিত লেখালেখি করতেন তিনি। জীবদ্দশায় রেখে গেছেন আজ রবিবার, বহুব্রীহির মতো বেশ কিছু নাটক। এছাড়া মঞ্চে নূরুলদীনের সারাজীবন, দেওয়ান গাজীর কিসসা, কপোনিকের ক্যাপ্টেনসহ অনেকগুলো নাটকে অভিনয় ও নির্দেশনা দিয়েছেন।

শিল্পকলায় অবদানের জন্য ১৯৯৯ সালে একুশে পদকে ভূষিত হন আলী যাকের। এছাড়া বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি পুরস্কার, বঙ্গবন্ধু পুরস্কার, মুনীর চৌধুরী পদক, নরেন বিশ্বাস পদক পেয়েছেন তিনি। আলী যাকের ও নাট্যব্যক্তিত্ব সারা যাকের দম্পতির ছেলে ইরেশ যাকের ও মেয়ে শ্রিয়া সর্বজয়া অভিনয়ের সঙ্গে যুক্ত।

অন্যদিকে ইরেশ যাকের জন্মগ্রহণ করেন ১৯৭৬ সালের ৬ নভেম্বর। তার ভিন্ন ধারার অভিনয় টিভি নাটকে দর্শকদের নতুন করে আকৃষ্ট করেছে। তবে শুধু টিভি পর্দাতেই নয়, তিনি অভিনয় করেছেন চলচ্চিত্রেও।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি