সমালোচনার মুখে ভার্চুয়াল হাজরে আসওয়াদ

পবিত্র কাবা শরিফে স্থাপিত বরকতময় কালো পাথর হাজরে আসওয়াদের আদলে তৈরি ভার্চুয়ালি হাজরে আসওয়াদ উদ্বোধন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সৌদি প্রেস এজেন্সি। সংস্থাটি জানায়, মক্কা-মদিনার পবিত্র দুই মসজিদের পরিচালনা পরিষদের প্রধান পরিচালক শায়খ আব্দুর রহমান আস-সুদাইসি ভার্চুয়াল প্রকল্পটি উদ্বোধন করেন। তবে এ নিয়ে হচ্ছে তুমুল সমালোচনাও।

এখন থেকে মক্কায় আগত মুসল্লিরা ভিআর প্রযুক্তি ও ডিজিটাল পদ্ধতির সহায়তায় হাজরে আসওয়াদকে ভার্চুয়ালি দেখতে, ছুঁতে এবং চুম্বন করতে পারবেন। উম্মুল কুরা ইউনিভার্সিটির অধীনে খাদেমুল হারামাইনিশ শারিফাইন হজ অ্যান্ড ওমরাহ ইনিস্টিটিউটের সহযোগিতায় ডিজিটাল এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

শায়খ সুদাইসি বললেন, ‘‘হাজরে আসওয়াদকে দেখা ও স্পর্শ করার অনুভূতির আবহ তৈরি করা হয়েছে এতে। এখানে এসে মুসল্লি যখন ভার্চুয়ালি হাজরে আসওয়াদের দিকে তাকাবেন, তখন তার মনে হবে তিনি যেন কাবায় হাজির হয়ে মূল হাজরে আসওয়াদের সামনেই দাঁড়িয়ে আছেন।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘মক্কা-মদিনার পবিত্র দুই মসজিদ ইসলামি এবং ঐতিহাসিক জিনিসপত্রে সমৃদ্ধ। এজন্য সৌদি সরকার ভিআর প্রযুক্তির সাহায্যে এমন আরও দৃশ্য উপস্থাপনের পরিকল্পনা নিয়েছে।’’

অবশ্য মুসলিম উম্মাহর আবেগের জায়গা হাজরে আসওয়াদের ভার্চুয়ালি উপস্থাপনকে ভালো নজরে দেখছেন না বিশ্বের অনেক মুসলমান। তারা এটিকে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না। আরব বিশ্বের সঙ্গে ভারত-বাংলাদেশেও সৌদি আরবের এই কাজের সমালোচনা হচ্ছে। সোমবার থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে এর বিরুদ্ধে প্রচুর সমালোচনা দেখা যায়। সূত্র: আল বাওওয়াবাহ নিউজ

বৈশাখী নিউজ/ জেপা