যে ৫ বদভ্যাস কিডনির ভয়ানক ক্ষতি করে

কিডনি আমাদের শরীরের খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। এই অঙ্গটি শরীর থেকে খারাপ পদার্থ বাইরে বের করে দেয়। খারাপ পদার্থ বের করে দেওয়ার জন্য কিডনি মূত্র তৈরি করে। প্রস্রাবের মাধ্যমেই বেরিয়ে যায় এই খারাপ উপাদান। তবে শুধু খারাপ পদার্থ বের করে দেওয়াই নয়, শরীরে সোডিয়াম-পটাশিয়ামের ভারসাম্য রক্ষার কাজটিও করে এই অঙ্গ। এছাড়া এই অঙ্গটি শরীরে তরলের মাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে। তাহলে বুঝতেই পারছেন এই একটি অঙ্গ ঠিক কতকগুলি কাজ করে থাকে! তাই বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই অঙ্গের খেয়াল রাখা আমাদের জন্য খুবই জরুরি।

তবে আমাদের জীবনের কিছু খারাপ অভ্যাস এই অঙ্গের উপর সরাসরি প্রভাব ফেলে। তখন অঙ্গটির সমস্যা দেখা যায়। তবে মনে রাখবেন, এই অঙ্গটির একবার ক্ষতি হলে শরীরে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তখন চিকিৎসা করে রোগ নিয়ন্ত্রণ করা গেলেও কিডনি কিন্তু আগের অবস্থায় ফিরবে না।

তাই কিডনির সমস্যা দেখা দেওয়ার আগেই এই বদভ্যাসগুলো ছাড়ুন..

> অনেক মানুষ দীর্ঘসময় প্রস্রাব চেপে রাখেন। এই অভ্যাস কিডনির ক্ষতি করতে পারে বলেই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। দীর্ঘসময় ধরে মূত্র বন্ধ করার ফলে হতে পারে ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশন, ব্লাডার ইনফেকশন, এমনকী কিডনিতেও ইনফেকশন হতে পারে । তাই এই অভ্যাস থাকলে আজই ছাড়ুন।

> অনেকে বেশি মাত্রায় প্রোটিন খেতে পছন্দ করেন। তাদের খাবারে থাকে বেশি মাত্রায় ডিম, মাছ, মাংস, সোয়াবিনের মতো প্রোটিন যুক্ত খাবার। তবে এই প্রোটিন বেশি পরিমাণে খেলে কিডনিও হতে পারে ক্ষতিগ্রস্ত। সেক্ষেত্রে এই খাদ্যাভ্যাস ছাড়ুন।

>কিডনি শরীরে সোডিয়াম-পটাশিয়ামের ভারসাম্য তৈরি করে। তবে লবণ বেশি খেলে শরীরে সোডিয়াম বেশি পরিমাণে পৌঁছয়। আর সোডিয়াম শরীরে পানি ধরে রাখে। ফলে ক্ষতি হয় কিডনির। এক্ষেত্রে শরীরে পানি ও সোডিয়ামের ভারসাম্য ঠিক থাকে না।

> কফিতে থাকে ক্যাফেইন। আর এই ক্যাফেইন শরীরে বেশি মাত্রায় পৌঁছে গেলে হতে পারে কিডনির ক্ষতি, অতিরিক্ত কফি পান ছাড়ুন।

> পানিপান করলে কিডনি ভালো থাকে। তবে আমাদের মধ্যে বহু মানুষ ভালোমতো পানিপান করতে চান না। এর ফল ভোগ করে কিডনি। তাই দিনে অন্তত ২ লিটার পানিপান করতেই হবে। তবে খুব বেশি পানিপান করবেন না। বেশি পানিপান করলে শরীরে সমস্যা হতে পারে।

সূত্র: এই সময়

বৈশাখী নিউজ/ ইডি