প্রথমবারের মতো ইউরোপ সফরে তালেবানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ক্ষমতা দখলের পর প্রথমবারের মতো ইউরোপের মাটিতে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসতে যাচ্ছে তালেবান। ন্যাটো বাহিনীর বিরুদ্ধে গত দুই দশকের সংঘাতের পর নরওয়ের রাজধানী অসলোতে অনুষ্ঠিতব্য এই আলোচনা ‘যুদ্ধের আবহাওয়া বদলাতে’ সাহায্য করবে বলে আশাবাদ তালেবান সরকারের।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) বার্তা সংস্থা এএফপির সঙ্গে আলাপকালে তালেবানের শীর্ষস্থানীয় মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এএফপিকে জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ জানান, ইসলামী আমিরাত পশ্চিমা বিশ্বের চাহিদা মেটানোর পদক্ষেপ নিয়েছে। আমরা আশা করি ইউরোপীয় দেশগুলোসহ সব দেশের সঙ্গে কূটনীতির মাধ্যমে আমাদের সম্পর্ক জোরদার হবে।

তালেবানের অন্তর্বর্তী সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকির নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল শনিবার নরওয়ের উদ্দেশে কাবুল ছাড়বেন বলে আফগানিস্তানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম খামা প্রেস এজেন্সি জানিয়েছে।

তালেবানের মুখপাত্র ইনামুল্লাহ সামাঙ্গানী জানান, আফগান প্রতিনিধি দলে মুত্তাকি ছাড়াও কয়েকজন মন্ত্রী রয়েছেন। তারা মার্কিন কূটনীতিক, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য, নরওয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও সেখানে অবস্থানরত আফগানদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

এ ব্যাপারে নরওয়ের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, নরওয়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও আফগানদের সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য ২৩-২৫ জানুয়ারি অসলোতে আফগান প্রতিনিধি দলকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

তবে আফগান প্রতিনিধি দলকে আমন্ত্রণ জানানোর অর্থ তালেবান সরকারকে বৈধতা দেওয়া কিংবা স্বীকৃতি দেওয়া নয় বলে বিবৃতিতে বলা হয়েছে।

কাবুলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন দূতাবাস খোলার একদিন পরই এই সফরের খবর সামনে এলো।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা