ইফতার ও বৈশাখী উপহার ঘিরে নতুন বিতর্কে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নিয়ে বিতর্ক থামছেই না। এবার শিল্পী সমিতির সাধারণ সদস্যরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ইফতারের আমন্ত্রণ ও বৈশাখী উপহার পাননি বলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ প্রসঙ্গে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তারা।

সম্প্রতি পহেলা বৈশাখ ঘিরে নতুন বিতর্কে জড়িয়েছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। আগের কমিটি প্রতি ঈদ ও নানা উৎসবে শিল্পীদের ফোন করে তাঁদের বাসায় উপহার পাঠিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করতো। কিন্তু এবার অনেকেই অভিযোগ করে বলেছেন তারা উপহার পাননি।

এ প্রসঙ্গে অভিনেত্রী মুনমুন বলেন, ‘নির্বাচনের দিন থেকেই একটি প্যানেল আমাকে নানাভাবে ছোট করে আসছে। আমার এত দিনের ক্যারিয়ারে দাগ দিয়েছে। সেসব না হয় বাদ দিলাম। আমি তো আজকের শিল্পী না। আমাকে কেনো ইফতার কিংবা বৈশাখী উপহার দেওয়া হবে না। আমরা তো উপহারের জন্য বসে থাকি না, আমরা চাই সম্মান।

এদিকে নায়িকা তানিন সুবাহ ফেইসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন: ‘…আমরা শিল্পী সমিতির সদস্য হওয়ার পর থেকেই বিভিন্ন উৎসবে বিভিন্ন উপহার পেয়েছি। কিন্তু বর্তমান কমিটি আসার পর নানা ধরনের বিতর্ক দেখা দিয়েছে। আমার কথাই যদি বলি তা হলে বলবো- এবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের আমন্ত্রণপত্র, বৈশাখী উপহার ও ইফতারের দাওয়াত দেয়া হয়নি। আপনারা আপনাদের কাছের নির্দিষ্ট কিছু শিল্পীদের উপহার দিয়ে ফেসবুকে ঢালাওভাবে শো-অফ করছেন। তাহলে আমরা কী? আমরা কি শিল্পী না?’

চিত্রনায়ক অভি ফেইসবুকে লিখেছেন: ‘একজন শিল্পী হিসেবে শিল্পী সমিতি থেকে যতটুকু ভালোবাসা পাওয়ার সেটা সম্পূর্ণ দাবি রাখি। কিন্তু পহেলা বৈশাখে শুনেছি আমার অনেক সহশিল্পীদের কাছে তাদের উপহার বা ভালোবাসা পৌঁছে গেছে বাট আমাকে কিন্তু সেটার অংশীদার মনে করেনি তারা।’

প্রশ্ন রেখে অভি আরও লিখেছেন, ‘ইফতার পার্টির জন্য তারা কল করে দাওয়াত করেছে। যাই হোক এতে কি আমি একজন শিল্পী হিসেবে সমিতির কাছ থেকে পুরোপুরি সম্মান পেলাম? এই প্রশ্নটা আমার শিল্পীদের কাছে উত্তর দিন।’

তবে বিষয়টি নিয়ে শিল্পী সমিতির কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি