করোনায় বিশ্বে প্রকৃত মৃতের সংখ্যা প্রায় দেড় কোটি

করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিশ্বে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় দেড় কোটি বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত মহামারিতে বিশ্বব্যাপী যে মৃত্যুর সংখ্যা পাওয়া যাচ্ছে প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা এর প্রায় ৩ গুণ বেশি।

ডব্লিউএইচও বিশ্বাস করে, অনেক দেশই কোভিডে মারা যাওয়া মানুষের সংখ্যা কম গণনা করেছে। বিশ্বে মাত্র ৫৪ লাখ মানুষের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ভারতে ৪৭ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে, এই সংখ্যা সরকারি হিসাবের চেয়ে দশগুণ বেশি। এ সংখ্যা বিশ্বে মোট মৃত্যুর এক তৃতীয়াংশ।

তবে ভারত এই সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেছে, এখানে পদ্ধতিগত ত্রুটি আছে। কিন্তু অন্যান্য গবেষণাতেও ভারতে কোভিডে মৃত্যুর সংখ্যার একইরকম পরিসংখ্যান এসেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, অনেক দেশেই পর্যাপ্ত করোনা পরীক্ষা না হওয়ায় প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা সরকারী গণনার চেয়ে অনেক বেশি। এমনকি মহামারির প্রাথমিক পর্যায়ে বিশ্বজুড়ে প্রায় ১০ জনের মধ্যে ৬ জনের মৃত্যুর তথ্য সরকারি হিসাবে অন্তর্ভুক্ত হয়নি।

আনুষ্ঠানিক হিসাব অনুযায়ী, ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ডিসেম্বরের শেষ পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৫৪ লাখের কিছু বেশি। তবে সংস্থাটি বলছে, প্রকৃত মৃত্যুসংখ্যা প্রায় ১ কোটি ৪৯ লাখ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যে পদ্ধতি ব্যবহার করেছে, তাকে অতিরিক্ত মৃত্যু গণনা বলা হচ্ছে। মহামারির আগে একই এলাকায় মৃত্যুহারের ওপর ভিত্তি করে প্রত্যাশিত তুলনায় কত বেশি লোক মারা যায় সে সংখ্যা। করোনার প্রত্যক্ষ প্রভাবে যারা মারা গেছেন তাদেরকেও অন্তর্ভূক্ত করা হয়। কোভিডে আক্রান্তের পর চিকিৎসা না পাওয়ায় যারা মারা গেছেন তাদেরকেও এ তালিকায় যুক্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।

ডব্লিউএইচওর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সরকারি হিসাব অনুযায়ী ভারতে ৪৮ লাখ মানুষের মৃৃত্যু হলেও প্রকৃত সংখ্যা এর প্রায় ১০ গুণ বেশি। বিশ্বে করোনা মহামারিতে মৃত্যুর তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর এক তৃতীয়াংশ মানুষই দেশটিতে মারা গেছে।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা