দুই হারের পর টানা দুই জয়, সিরিজ সমতায় ভারত

প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ হারাতে বসেছিল টিম ইন্ডিয়া। সেই খাদের কিনার থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে স্বাগতিকরা। সিরিজের চতুর্থ ম্যাচে দীনেশ কার্তিক ও হার্দিক পান্ডিয়ার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ভর করে লড়াকু সংগ্রহ গড়ে ভারত। এরপর বল হাতে প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটারদের খাবি খাওয়ালেন পেসার আভেশ-চাহালরা।

আর তাতেই টানা দ্বিতীয় জয়ে সিরিজ সমতায় আনলো স্বাগতিকরা।

শুক্রবার রাজকোটে সিরিজের চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে ৮২ রানের বড় জয় পেয়েছে ভারত। শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৭০ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেয় ভারতীয় দল। জবাবে ৮৭ রান তুলতেই সব উইকেট হারিয়ে ফেলে প্রোটিয়ারা। ফলে ৫ ম্যাচের সিরিজে এখন ২-২ সমতা বিরাজ করছে।

লক্ষ্য তাড়ায় নামা দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম দুই ব্যাটার হন দুর্ভাগ্যের শিকার। এর মধ্যে দলীয় ২০ রানেই অধিনায়ক ও ওপেনার টেম্বা বাভুমা (৮) রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে ফেরেন। এরপর আরেক ওপেনার কুইন্টন ডি কক (১৪) ফেরেন রান আউটের শিকার হয়ে। সেই ধাক্কা আর সামলে উঠতে পারেনি সফরকারীরা।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে তারা। ডি ককের পর দুই অঙ্কের দেখা পেয়েছেন শুধু র্যা সি ফ্যান ডার ডুসেন (২০) ও মার্কো ইয়েনসেন (১২)। বাকিরা ছিলেন আসা-যাওয়ার মিছিলে।

বল হাতে ভারতের আভেশ খান ৪ ওভারে ১৮ রান খরচে নেন ৪ উইকেট। এছাড়া যুজবেন্দ্র চাহাল ২টি এবং হার্শাল প্যাটেল ও অক্ষর প্যাটেল ১টি করে উইকেট তুলে নিয়েছেন।

এর আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের শুরুটাও ভালো হয়নি। দলীয় ১৩ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর স্বাগতিকরা একসময় ৪০ রানে ৩ উইকেট হারায়। তবে এরপর পন্থকে নিয়ে ৪১ রানের জুটি গড়ে ধাক্কা সামাল দেন হার্দিক। পন্থ ২৩ বলে ১৭ রান করে বিদায় নিলে কার্ত্তিক আর হার্দিক মিলে গড়েন ৬৫ রানের জুটি। হার্দিক ৩১ বলে ৩ চার ও ৩ ছক্কায় করেন ৪৬ রান। আর কার্তিকের ব্যাট থেকে আসে ২৭ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৫৫ রানের বিধ্বংসী ইনিংস। ৬ বলের ব্যবধানে দুজনেই বিদায় নেওয়ায় সংগ্রহটা আরও বড় করতে পারেনি ভারত।

বল হাতে দক্ষিণ আফ্রিকার লুঙ্গি ইনগিডি ২টি এবং ইয়েনসেন, প্রিটোরিয়াস, এনরিখ নরকিয়া ও কেশভ মহারাজ ১টি করে উইকেট নেন।

ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন দীনেশ কার্তিক।

বৈশাখী নিউজ/ বিসি