যে নারীর কারণে ভাঙতে বসেছিল গোবিন্দর সংসার!

বলিউডের এক সময়ের জনপ্রিয় তারকা গোবিন্দ। পুরো নাম গোবিন্দ অরুন আহুজা। ১৯৮৬ সালে মুক্তি পায় তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘লভ ৮৬’। আর এই সিনেমা মুক্তির পরই দীর্ঘকালীন প্রেমিকা সুনীতাকে বিয়ে করেন গোবিন্দ। কিন্তু বিবাহিত জীবন প্রথম দিকে খুব একটা সুখের ছিল না এই অভিনেতার।

কেরিয়ারের শীর্ষে থাকলেও ব্যক্তিগত জীবনে সুখী ছিলেন না তিনি। শোনা যায়, অভিনেত্রী নীলমের জন্য সংসার প্রায় ভাঙতে বসেছিল অভিনেতার। সে কথা অনেক পরে এক সাক্ষাৎকারে নিজেই বলেছিলেন গোবিন্দ।

এক সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিনেতা বলেন, “প্রথম দিকে খুব সতর্ক থাকতাম। কিন্তু ধীরে ধীরে নীলমের কাছে নিজেকে মেলে ধরতে থাকি। আমরা বন্ধু হয়ে যাই। দুজনের পরিবার, বেড়ে ওঠা সম্পূর্ণ ভিন্ন ছিল। কিন্তু ধীরে ধীরে বন্ধু হয়ে উঠি একে অপরের। আস্তে আস্তে ভালো লাগতে শুরু করে নীলমকে।”

আর এ কথা কি চাপা থাকে! ঠিক তেমনি এই ভালোলাগা অচিরেই প্রকাশ্যে আসতে শুরু করে। অন্যদিকে নিজের অজান্তেই সুনীতা ও অন্য বন্ধুদের সামনে নীলমের প্রশংসা শুরু করেছিলেন গোবিন্দ।

অভিনেতা নিজেই বলেন, “সুনীতাকে বলি নীলমের মতো হতে। যা তার খারাপ লাগে। নিজেই বুঝতে পারছিলাম না, ঠিক করছি, না ভুল!”

আর কিছু দিন এমন চললে হয়তো বিয়েটাই ভেঙে যেত। পরে সে কথা বুঝে নিজেই সরে আসেন নীলমের কাছ থেকে। টিকে যায় সুনীতার সংসার। এ কথাও সকলের সামনে স্বীকার করেছিলেন অভিনেতা।

সুত্র: আনন্দবাজার অনলাইন

বৈশাখী নিউজ/ জেপা