ঈদের তৃতীয় দিনেও ফাঁকা ঢাকা

ঈদের তৃতীয় দিনেও ফাঁকা ঢাকা। ঈদুল আজহার ছুটি শেষে খুলেছে সরকারি-বেসরকারি অফিস।

মঙ্গলবার (১২ জুলাই) থেকে খুলেছে অফিস-আদালত, ব্যাংক-বিমা ও শেয়ারবাজার। ফলে কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে গ্রাম থেকে ঢাকায় ফিরছে মানুষ।

তবে সরকারি ছুটি শেষ হলেও চিরচেনা যানজটের রাজধানী ঢাকা এখনো ফাঁকা আছে। অধিকাংশ হোটেল-রেস্তোরাঁও বন্ধ। যানজট নেই, সড়কে গাড়ি এবং মানুষের চলাচলও খুব কম। যেসব গন্তব্যে যেতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লেগে যেত, সেগুলোতে এখন যাওয়া যাচ্ছে কয়েক মিনিটেই। যানজটের নগরী ঢাকা যেন পুরোই অচেনা।

রাজধানীর গাবতলী, মিরপুর, মতিঝিল ও ধানমন্ডি ঘুরে দেখা গেছে সড়কে গণপরিবহনের সংখ্যা কম। ঈদের ছুটির পরও এখনো সবাই অফিসে যোগ দেননি। তবে সড়কে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যক্তিগত গাড়ি রয়েছে। গণপরিবহনেও যাত্রী ছিল কম।

কল্যাণপুর ও গাবতলী বাস কাউন্টারের দেয়া তথ্যমতে, সোমবার বিকেল-সন্ধ্যার দিকে তাদের বেশ কয়েকটি বাস যাত্রীসহ ঢাকায় এসেছে।

আজ সকালেও তেমন চাপ নেই। তবে আজ রাত থেকে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল থেকে বাসের শিডিউল সংখ্যা বাড়বে, কাল সকাল থেকে রাজধানীতে বেশি যাত্রী নামবে।

শুধু রাজধানীর রাজপথ নয়, অলিগলিতেও ঈদের ছুটির আমেজ দেখা গেছে। রাজধানীর বিভিন্ন অলিগলির ছোট মুদির দোকান ও চায়ের দোকানগুলোতেও নেই চিরচেনা আড্ডা। ফাঁকা অলিগলিতে খুব কম সংখ্যক মানুষ জরুরি প্রয়োজনে বের হচ্ছেন।

এদিকে উত্তরবঙ্গের মানুষের প্রবেশদ্বার গাবতলী বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা গেছে, সেখানেও নেই গণপরিবহনের ভিড়। ঈদ উদযাপন করে জরুরি প্রয়োজনে কেউ কেউ ঢাকায় ফিরছেন। অর্ধেক সিট ফাঁকা রেখে অনেক দূরপাল্লার বাসকে ঢাকায় ফিরতে দেখা গেছে। তবে এক্ষেত্রে যাত্রীদের ভাড়া বেশি গুণতে হচ্ছে।

বৈশাখী নিউজ/ বিসি