কৃষিতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় সার্বক্ষণিক প্রস্তুতি রয়েছে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আগস্টে আরেকটি ভয়াবহ বন্যা হতে পারে। তবে বন্যা খরাসহ যে কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় কৃষি মন্ত্রণালয় প্রস্তুত রয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের কনফারেন্স কক্ষে কৃষিখাতে সরকারি বেসরকারি অংশিদারিত্ব (পিপিপি) নিয়ে এক পর্যালোচনা সভায় মন্ত্রী আজ এসব কথা বলেন। কৃষি সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম সভায় সভাপতিত্ব করেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশের কৃষি প্রকৃতি নির্ভর এবং কৃষি সবসময়ই বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকিতে থাকে। সাম্প্রতিক বন্যায় সিলেট, সুনামগঞ্জসহ ১২টি জেলায় ফসলের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সরকার ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, কৃষিতে সরকারের এখন মূল লক্ষ্য হলো কৃষিকে সত্যিকার অর্থে বাণিজ্যিকীকরণ করা, যাতে কৃষকের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটে। এক্ষেত্রে বেসরকারি শিল্পোদ্যোক্তারা এগিয়ে আসলে তাদেরকে প্রযুক্তিগত, অর্থনৈতিক, পলিসিসহ সকল বিষয়ে সহযোগিতা প্রদান করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

সভা শেষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী বলেন, চাল আমদানির ফলে কৃষকদের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা নেই। ‘বাজার স্থিতিশীল রাখতেই সরকার চাল আমদানির অনুমতি দিয়েছে। চাল আমদানি আমাদের একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টার্গেট আছে। সেই পরিমাণ চাল দেশে এসে গেলে আমদানি বন্ধ করে দেয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, চালের দাম চাহিদা ও সরবরাহের উপর নির্ভরশীল। তবে সিন্ডিকেট করে অনেকে বেশি মুনাফা করার চেষ্টা করে। এদেরকে নিবৃত করার জন্যও চাল আমদানির অনুমতি দেয়া হয়েছে।

বিদেশিদের সাথে বিএনপির সাম্প্রতিক বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, বিদেশি বা আমাদের উন্নয়ন সহযোগীদের সাথে বিএনপি মতবিনিময় করতেই পারে। তবে ক্ষমতায় যেতে হলে বিএনপিকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েই ক্ষমতায় আসতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্র বা বিদেশি শক্তি যত বড় ক্ষমতাধরই হোক না কেন, বাংলাদেশের নির্বাচনে তারা কোনও ভূমিকা রাখতে পারবে না। -বাসস

বৈশাখী নিউজ/ ইডি