‘ইউক্রেন যুদ্ধ দেখিয়ে দিচ্ছে পশ্চিমা আধিপত্য শেষ হচ্ছে’

ইউক্রেন যুদ্ধ দেখিয়ে দিচ্ছে পশ্চিমা আধিপত্যের অবসান এবং চীনের উত্থান ঘটছে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার।

‘ইউক্রেনের পর, পশ্চিমা নেতৃত্বের জন্য এখন কী শিক্ষণীয়?’ শিরোনামে গতকাল শনিবার ডিচলে ফাউন্ডেশনের বার্ষিক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় এ মন্তব্য করেন টনি ব্লেয়ার।

সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, করোনাভাইরাসের মহামারী এবং ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে পাশ্চাত্যের জনগণের একটা বিরাট অংশের জীবনমানে পতন ঘটেছে।

টনি ব্লেয়ার বলেন, পাশ্চাত্যের রাজনীতি গোলযোগপূর্ণ, অতিমাত্রায় দলীয়, কুৎসিত, অনুৎপাদনশীল এবং সামাজিক মাধ্যম থেকে ইন্ধনপ্রাপ্ত যার প্রভাব পড়ছে অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে।

তিনি বলেন, ইউক্রেনে রাশিয়া যে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তারপর পাশ্চাত্যের পুনরুজ্জীবনের পথ খুলে যাওয়া উচিত।

ব্লেয়ার অনেকটা ভবিষ্যৎবাণী করে বলেন, “চলতি শতাব্দীতে যে ভূ-রাজনৈতিক পরিবর্তন আসবে তা চীন থেকে আসবে, রাশিয়া থেকে নয়। আমরা পাশ্চাত্য রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক আধিপত্যের অবসানের দিকে এগিয়ে চলেছি। এর ফলে বিশ্ব দ্বিমেরুকেন্দ্রিক অথবা বহু মেরুকেন্দ্রিক হতে পারে।

এ সময় তিনি পশ্চিমাদের সতর্ক করে বলেন, চীন হচ্ছে এই মুহূর্তে বিশ্বের দ্বিতীয় পরাশক্তি যারা পশ্চিমাদের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করবে। এই প্রতিযোগিতা শুধু ক্ষমতার প্রতিযোগিতা হবে না বরং পদ্ধতি, আমাদের শাসন এবং জীবন ব্যবস্থার ধরন এগুলোর সঙ্গে প্রতিযোগিতা হবে। এক্ষেত্রে চীন একা থাকবে না, তার মিত্র হবে রাশিয়া। সূত্র: রয়টার্স।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা