বরিস জনসনের স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন ঋষি সুনাক বা লিজ স্ট্রাস

বরিস জনসনের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার দৌড়ে বাকি রইলেন আর মাত্র ২ জন। ভারতীয় বংশোদ্ভূত সাবেক ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী ঋষি সুনাক এবং সাবেক ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রী লিজ স্ট্রাস। এই দুজন থেকেই চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত ব্যক্তিই ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির নেতা ও যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হবেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দলীয় নেতা নির্বাচনের দলীয় এমপিদের সমর্থন অর্জনের সর্বশেষ ধাপে ১৩৭ ভোট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে ঋষি সুনাক এবং ১১৩ জন এমপির সমর্থন নিয়ে তাঁর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন লিজ স্ট্রাস। সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী এবং বরিস জনসনের তীব্র সমালোচক বলে খ্যাত পেনি মরডন্ট এই দৌড় থেকে ছিটকে পড়েছেন। সর্বশেষ ধাপে মরডন্ট পেয়েছিলেন ১০৫ জন এমপির সমর্থন।

এমপিদের সমর্থনে চূড়ান্ত দুই প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ার পর এবার এই দুজন থেকে দলীয় নেতা এবং প্রধানমন্ত্রী বাছাই করবেন কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যরা। দেশব্যাপী প্রায় ২ লাখ দলীয় সদস্যের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হবেন পরবর্তী নেতা। তবে এই ভোটের ফলাফল জানা যাবে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর।

সর্বশেষ ফলাফল থেকে এটি স্পষ্ট যে—ব্রিটেন হয় তাঁর প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রধানমন্ত্রী পেতে যাচ্ছে, নয়তো তৃতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী পেতে যাচ্ছে। তবে ভারতীয় বংশোদ্ভূত হওয়া এবং তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ থাকা ঋষি সুনাকের জন্য নেতিবাচক দিক হিসেবে হাজির হতে পারে। এ ছাড়া, বরিস জনসন এবং তাঁর সমর্থকেরা তো খোলাখুলিভাবেই ঋষির বিরুদ্ধে কথা বলছেন।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি