বিএনপির সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে ভোলায়

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নূরে আলমের মৃত্যুর প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে ভোলায় চলছে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল। বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা ৫০ মিনিটের দিকে শহরের মহাজন পট্টি জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে মিছিল করে তারা।

এ সময় মহাজন পট্টি জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিলটি বের হয়ে সদর রোডের বাংলাস্কুল মোড় পর্যন্ত ঘুরে পুনরায় দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলকারীরা হরতালের সমর্থনে স্লোগান দেয়।

সকাল থেকে এখন পর্যন্ত ভোলা শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিলের খবর পাওয়া গেছে। এর বাইরে কোথাও হরতালের সমর্থনে মিছিল বা পিকেটিংয়ের খবর পাওয়া যায়নি। তবে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, স্কুল কলেজ খোলার সময় না হওয়ায় রাস্তাঘাট অনেকটা ফাঁকা ও শান্ত রয়েছে।

এদিকে যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে জেলা বিএনপি কার্যালয়সহ শহরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে নূরে আলমের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষোভ শুরু করে দলের নেতাকর্মীরা। এ সময় হরতালের ডাক দেয় নেতাকর্মীরা।

ভোলা জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর বলেন, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নূরে আলম পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গুরুতর আহত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে তিনি মারা গেছেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয়া হলো।

রোববার (৩১ জুলাই) ভোলায় জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। সমাবেশকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় মো. আবদুর রহিম নামে অন্য একজন নিহত হয়েছেন। ছয় পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন প্রায় ৫০ জন। এ ঘটনায় আহত ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নূরে আলম চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার মারা যান।

বৈশাখী নিউজ/ ইডি