ট্রাম্পকে গুলি করলেন কিম (ভিডিও)!

শুয়ে আছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তা-ও আবার রেড কার্পেটে। তিনি জ্যান্ত নন। মৃত অবস্থায় শুয়ে আছেন। আর তার দিকে পিস্তল তাক করে আছেন উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উন। যে সে পিস্তল নয়, এক্কেবারে স্মোকিং পিস্তল। আশপাশ থেকে শোনা যাচ্ছে একটাই শোরগোল, ‘দ্যা শো মাস্ট গো অন!’

সত্যি ভাবলেন? এই দৃশ্যপট আসলে একটি আর্ট গ্যালারির। দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সোলের সেই আর্ট গ্যালারিতে বিশ্বের দুই প্রতাপশালী নেতার পুতুল বানিয়ে প্রদর্শনী করছেন সাউথ কোরিয়ান শিল্পী লিম ইয়ং সান।

চলতি বছরেই সিঙ্গাপুরে পরমাণু অস্ত্রশস্ত্র বিষয়ক আলোচনায় বসেছিলেন কিম জং উন এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প। ২০১৮ উত্তর কোরিয়া- আমেরিকা শীর্ষ বৈঠকে করমর্দনও করতে দেখা গিয়েছিল দুই রাষ্ট্রনেতাকে। ৫৯ বছরের শিল্পী লিমের কথায়, রাজনৈতিক দিক থেকে বাস্তবটা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। সেই বাস্তব, যে বাস্তব সাধারণ নাগরিককে কখনও ভয় পাইয়ে দেয়, সেই বাস্তবের কোনও মুহূর্ত কখনও নাগরিক উদ্বিগ্ন করে, ঠিক তেমনই সিনেমার মতো কখনও তা আনন্দও দেয়।

কিছুটা সিনেমার সেটের মতো করেই নিজের প্রদর্শনী সাজিয়েছেন শিল্পী লিম ইয়ং সান। বন্ধুর মতোই ট্রাম্প এবং কিম দু’জনে মিলে অর্থের লভ্যাংশ নিয়ে ঝগড়া করছেন। হুট করেই চড়া সুদ চেয়ে বসলেন ট্রাম্প। আর তাতে তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠলেন কিম জং উন। রেগে গিয়ে ট্রাম্পের উপর গুলিই চালিয়ে দিলেন ক্রুদ্ধ কিম।

শিল্পীর কথায়, রাজনৈতিক ক্ষেত্রে দুই নেতাই মাস্টার। কিন্তু নিজেদের রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে গিয়ে সাধারণ নাগরিককে বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছেন তারা।

এক সপ্তাহ ধরে চলা এই প্রদর্শনীর শেষ দিন ছিল গতকালই। হাজার হাজার মানুষ এসে দেখে গিয়েছেন এই প্রদর্শনী। কেউ ভালো বলেছেন। কেউ আবার মুখের উপরেই বলেছেন, আপনাদের মতো শিল্পীরাই দক্ষিণ কোরিয়া এবং আমেরিকার মধ্যে সম্পর্কে ভাঙন ধরানোর চেষ্টা করছেন।

শিল্পী লিম ইয়ং সান বললেন, গণতান্ত্রিক দেশে ট্রাম্পের মতো রাজনীতিকরা আসবেন, যাবেন। কিন্তু কিম জং উনের মতো স্বৈরাচারী শাসক বহুদিনের জন্য ক্ষমতায় থেকে যাবেন।

-বৈশাখী নিউজ/Boishakhi News