প্রশ্ন ফাঁসের দায়ে শিক্ষককে কারাদণ্ড, ৭ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

হবিগঞ্জের বাহুবলে দাখিল পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁস করার অপরাধে এক শিক্ষককে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে মোবাইল ফোনের ব্যবহারের মাধ্যমে নকল করার দায়ে ৭ জন পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ সময় পরীক্ষার্থীদের নিকট থেকে ৯টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

আজ বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩টায় ওই শিক্ষককে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে দুপুরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রফিকুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্ত শিক্ষক রকেট উদ্দিন বাহুবল উপজেলার মিরপুর দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক হিসেবে কর্মরত।

বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুক আলী জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় বাহুবল ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে প্রবেশ করেন শিক্ষক রকেট উদ্দিন। যদিও তিনি এ কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেউ নন। সংরক্ষিত প্রশ্নপত্রের কক্ষে প্রবেশ করে মোবাইল ফোনের ব্যবহার করে এগুলো বাইরে সরবরাহের সময় দায়িত্বপ্রাপ্তরা তাকে আটক করেন। তার নিকট থেকে ২টি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। এগুলো যাচাই-বাছাই এবং পরবর্তীতে সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মোবাইল কোর্টে উল্লেখিত সাজা প্রদান করা হয়।

এদিকে এসএসসি পরীক্ষা চলাকালে মিরপুর দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে মোবাইল ব্যবহারের মাধ্যমে নকল করায় ৭ শিক্ষার্থী বহিষ্কার হয়েছে। এ সময় তাদের সকলের নিকট থেকেই একটি করে মোবাইল জব্দ করা হয়।