একজন করোনা রোগী আক্রান্ত করতে পারেন ৪০৬ জনকে

মহামারি করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের মিছিল যেন থামছেই না। এখন পর্যন্ত কার্যকর কোন ওষুধ আবিষ্কার হয়নি। তবে সংক্রমণ প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব ও লকডাউনের মতো পন্থা অবলম্বন করা হচ্ছে দেশে দেশে।

বিশেষজ্ঞদের মতে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হলে এর কোনো বিকল্পও নেই। কারণ নিয়ম মানা না হলে করোনা আরো বেশি মরণঘাতী হয়ে উঠবে এবং স্বাভাবিকের মাত্রার চেয়ে অনেক বেশি মানুষকে আক্রান্ত করবে।

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিচার্সের (আইসিএমআর) এক প্রতিবেদন বলছে, লকডাউন এবং সামাজিক দূরত্বের নিয়ম মানা না হলে ৩০ দিনে একজন করোনা রোগী আক্রান্ত করতে পারেন আরো ৪০৬ জনকে।

এক সংবাদ সম্মেলনে মঙ্গলবার ভারতীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব লাভ আগারওয়াল বলেন, যদি একজন ব্যক্তি লকডাউন এবং সামাজিক দূরত্বের নিয়ম না মানেন, তবে ৩০ দিনে তিনি আরো ৪০৬ জনকে আক্রান্ত করতে পারেন। তবে সামাজিক মেলামেশা যদি ৭৫ শতাংশ কমিয়ে আনা যায়, তবে সেই একই ব্যক্তির মাধ্যমে আক্রান্ত হতে পারেন কেবল ২ দশমিক ৫ জন ব্যক্তি।

পাশাপাশি আরনট (ভাইরাসের সংক্রমণ প্রকাশের হিসাব) হিসাব অনুযায়ী একজন আক্রান্ত থেকে ১ দশমিক ৫ থেকে ৪ জন পর্যন্ত সংক্রমিত হচ্ছেন বলে জানান তিনি। যে কারণে বারবার সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার বিষয়টির ওপর গুরুত্ব দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় নতুন ৬২ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর আগে বুধবার ঢাকায় আক্রান্ত হন ৩৯ জন। এ নিয়ে গত তিনদিনে রাজধানীতে ১২১ জন করোনায় আক্রান্ত হলেন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় যে একজনের মৃত্যু হয়েছে তার বাড়িও ঢাকায়।

সরকারের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আইইডিসিআর-এর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

বৈশাখী নিউজএপি