করোনায় বরিশালে শনাক্ত নতুন ৫১ জন

বরিশালে আরও ৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৮১০ জন।

এ ছাড়া এ পর্যন্ত জেলায় করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ১২৭ রোগী। জেলায় মৃত্যুবরণ করেছেন ১০ জন।

ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপিং সায়েন্স অ্যান্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভস থেকে প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী, জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলায় একজনের শরীরে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ থেকে প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ৩ সদস্য, শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩ নার্স, ১ মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, ২ স্টাফ এবং সদর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ১ জন; বানারিপাড়ার ৬, উজিরপুরের ৩, বাবুগঞ্জের ২, বাকেরগঞ্জের ৫, হিজলার ১, মেহেন্দীগঞ্জের ১ ও পুলিশ সদস্য ১ জন; বরিশাল সিটি কর্পোরেশনভুক্ত এলাকার হাটখোলা, বাজার রোড, আলেকান্দা, ভাটিখানা প্রত্যেক এলাকার ২ জন করে মোট ৮ জন; বটতলা, সাগরদী, রূপাতলী, মুন্সী গ্যারেজ, কাউনিয়া, পলাশপুর, সদর হাসপাতাল রোড, চাঁদমারী, কাশিপুর, বগুড়া রোড, ফকিরবাড়ি, মেডিকেল স্টাফ কোয়ার্টার প্রত্যেক এলাকার ১ জন করে মোট ১২ জন; বরিশাল সদর উপজেলার জাগুয়া ইউনিয়নের কালিজিরা বাজার এলাকার ১ জনসহ মোট ৫১ জন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপিং সায়েন্স অ্যান্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভস ঢাকা থেকে প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী, একজন ও বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগে স্থাপিত আরটি-পিসিআর ল্যাবে বেশ কিছু নমুনা পরীক্ষা করা হলে ৫০ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

বরিশালের জেলা প্রশাসক এসএম অজিয়র রহমান জানান, রিপোর্ট পাওয়ার পর পরই ওই ৫১ ব্যক্তির অবস্থান অনুযায়ী লকডাউন করা হয়েছে।

তাদের আশপাশের বসবাসের অবস্থান নিশ্চিত করে লকডাউন করার প্রক্রিয়া চলছে। পাশাপাশি তাদের অবস্থান এবং কোন কোন স্থানে যাতায়াত ও কাদের সংস্পর্শে ছিলেন তা চিহ্নিত করার কাজ চলছে; সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরিশাল জেলায় এ পর্যন্ত ২১৭ নারী ও ৫৯৩ পুরুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে শূন্য থেকে ২০ বছর বয়স পর্যন্ত আক্রান্ত ৪৪ জন, ২০ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত আক্রান্ত ৬২১ জন, ৫০ থেকে তার ঊর্ধ্বে ১৪৫ জন। করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে ১৪ বছরের শিশু এবং ৬৪ বছরের বৃদ্ধ বয়সী রোগী রয়েছে। বরিশাল জেলায় করোনা আক্রান্ত উপজেলাগুলো হচ্ছে- বরিশাল মহানগরী ৬২৯, সদর উপজেলা ১৬ জন (রায়পাশা কড়াপুর, শায়েস্তাবাদ-২, টুঙ্গীবাড়িয়া, চাঁদপুরা, জাগুয়া-৪, চরকাউয়া-৪ এবং চরমোনাই-৩), বাবুগঞ্জ ৩২ জন, উজিরপুরে ২৯, বাকেরগঞ্জে ২৬, মেহেন্দীগঞ্জে ১৫, মুলাদীতে ১২, গৌরনদীতে ১৬, বানারীপাড়া ১৯, আগৈলঝাড়া ১০ জন এবং হিজলায় ৬ জন। স্বাস্থ্য বিভাগের ৭ জনসহ মোট ১১৩ ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ জেলায় ১০ জন করোনা পজিটিভ ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছেন।

মুলাদী উপজেলায় ২ জন, বাকেরগঞ্জে ১, বরিশাল মহানগরীর আলেকান্দায় ২, রূপাতলী চান্দুর মার্কেট এলাকায় ১, নতুন ভাটিখানা এলাকায় ১, রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে ১, বাবুগঞ্জে ১ এবং গৌরনদী উপজেলায় ১ জন।

গত ১২ এপ্রিল এ জেলায় প্রথমবারের মতো মেহেন্দীগঞ্জ ও বাকেরগঞ্জ উপজেলায় ২ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের পরিপ্রেক্ষিতে ওই দিনই জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

বৈশাখী নিউজজেপা