খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠানোর সুযোগ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রচলিত আইন অনুযায়ী (৪০১ ধারা) দ্বিতীয়বার সাজা মওকুফ করে বিদেশে যাওয়ার সুযোগ নেই। তাই তাদের আবেদন মঞ্জুর করা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

আজ রোববার (৯ মে) দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ৪০১ ধারা অনুযায়ী খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে যে সুবিধা দেওয়া হয়েছে সেটা দ্বিতীয়বার দেওয়ার সুযোগ নেই বলে ইতোমধ্যে আইন মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। তাই আমরা তাদের আবেদন মঞ্জুর করতে পারছি না। প্রলচিত আইন অনুযায়ী বিদেশে যাওয়ার সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ভাই একটি আবেদন নিয়ে আসছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। আপনারা এও জানেন আদালতে দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে খালেদা জিয়া প্রিজনে রয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীকে মাদার অব হিউম্যানিটি বলে সবাই জানেন। তিনি মানবতার তাগিদে আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ৪০১ এর ১ উপধারা অনুযায়ী তার (খালেদা জিয়া) দণ্ডাদেশ স্থগিত করেন। বাসায় সুবিধামতো চিকিৎসা নেওয়ার সুযোগ করে দিয়েছিলেন। তিনি চিকিৎসা নিচ্ছিলেন এবং বাসায় অবস্থান করছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘সম্প্রতি খালেদা জিয়া কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা নিচ্ছিলেন। এরমধ্যেই তার ছোটভাই আবার যে আবেদনটি করেছিলেন আপনারা তা জানেন।

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসা করানোর জন্য একটা অনুরোধ আমাদের কাছে করেছিলেন। আমরা আবেদনটি আইন মন্ত্রণালয়ের মতামতের জন্য পাঠিয়েছিলাম। সেখান থেকে তাদের যে মত আসছে তাতে তারা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে ৪০১ এর ১ ধারায় সাজা স্থগিত করে যে সুবিধাটি দেওয়া হয়েছে, সেটা দ্বিতীয়বার আবার তাকে সাজা মওকুফ করে বিদেশ পাঠানোর কোন অবকাশ আর নেই ৪০১ এ। আপনারা জানেন শর্তসাপেক্ষে খালেদার সাজা স্থগিত করা হয়েছিল যে তিনি বিদেশে যেতে পারবেন না, বাসায় থেকেই চিকিৎসা নেবেন। ’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত অনুযায়ী আমরা তাদের আবেদন মঞ্জুর করতে পারছি না। আমরা তাদের এখন এটিই জানিয়ে দেবো।

তাহলে আপনারা বিষয়টিকে আর মানবিকভাবে দেখছেন না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ কথাটি আপনি কেন বললেন? মানবিক বিষয় দেখবো বলেইতো আমরা পাঠিয়েছি, যে আইনের কোনো জায়গার মাধ্যমে তাকে দেওয়া যায় কিনা। প্রচলিত আইন অনুযায়ী এখানে দেওয়ার কোন সুযোগ নেই। মানবিকতা দেখেই প্রধানমন্ত্রী সাজা স্থগিত রেখে চিকিৎসাসেবা গ্রহণের সুযোগ দিয়েছিলেন।

আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমাদের আইন অনুযায়ী যেটুকু করণীয় সেটুকু করছি। বিএনপি আবেদন করতেই পারে, আমরাতো আইনের বাইরে কিছু করতে পারি না।

এর আগে সকালে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশ পাঠানোর আবেদনের বিষয়ে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের মতামত সম্বলিত নথি আইন ও বিচার বিভাগের সচিবের দপ্তর থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

বৈশাখী নিউজ/ এপি