চীন তাদের দায়িত্বগত মান পূরণে ব্যর্থ হয়েছে: নাসা

চীনের লং মার্চ-৫বি ওয়াই২ রকেটের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীতে পড়ার বিষয়ে অবশেষে মুখ খুলল মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (নাসা)।

নাসার প্রশাসনিক কর্মকর্তা বিল নেলসন জানিয়েছে, এটা পরিষ্কার যে চীন তাদের দায়িত্বগত মান পূরণে ব্যর্থ হয়েছে।

সংস্থাটি জানায়, মহাকাশ গবেষণাকারী দেশগুলোকে মানুষের ঝুঁকি ও সম্পদ রক্ষার্থে অবশ্যই সচেতন হতে হবে। সেইসঙ্গে মহাকাশ নিয়ে কাজ করলে অবশ্যই কাজের নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা ও দীর্ঘস্থায়িত্ব নিশ্চিত করতে হবে।

আজ রোববার (০৯ মে) বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৮টার দিকে রকেটটির ধ্বংসাবশেষ মালদ্বীপের ওপর দিয়ে সেটি ভারত মহাসাগরের আরব সাগরের অংশে আছড়ে পড়ে।

গত মাসে চীনের নতুন মহাকাশ স্টেশনের প্রথম মডিউলটি নিয়ে কক্ষপথে রওনা দেয় লংমার্চ ৫বি নামে রকেটটি।

তিয়ানহে মডিউল চীনের নির্মাণাধীন স্থায়ী মহাকাশ স্টেশনের খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ। স্টেশনটির তিন ক্রুর বসবাসের কোয়ার্টার এই মডিউলটিতে করেই নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

মহাকাশ স্টেশন স্থাপনের জন্য কক্ষপথে মোট ১১টি মিশন পরিচালনা করছে চীন। এর প্রথমটিতেই লংমার্চ ৫বি রকেটে করে তিয়ানহে মডিউল কক্ষপথে পাঠানো হয়।

বায়ুমণ্ডলে নিয়ন্ত্রণহীনভাবে ঘুরপাক খেতে থাকা গত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় বস্তু ছিল ১৮ টন ওজনের এই ধ্বংসাবশেষ।

বৈশাখী নিউজ/ এপি