করোনায় ইউরোপে আরও ৫ লাখ মৃত্যু হতে পারে: ডব্লিউএইচও

ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে ইউরোপ মহাদেশে করোনায় আরও পাঁচ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হতে পারে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘ডব্লিউএইচও’।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই সতর্কবাণী দেন সংস্থাটির ইউরোপের প্রধান হ্যান্স ক্লুজ। আবারও করোনায় সংক্রমণ এবং মৃত্যু বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কার কারণ হিসাবে অধিকাংশ মানুষ টিকার আওতায় না আসাকেই দায়ী করেছেন হ্যান্স।

ফেব্রুয়ারির এই ধাক্কা সামলাতে কৌশলগত পরিবর্তন আনতে হবে বলেও জানান তিনি বলেন, “আমাদের অবশ্যই প্রচণ্ড কৌশলী হতে হবে, কোভিড-১৯ এ নতুন করে সংক্রমণ শুরুর প্রাথমিক পর্যায় থেকেই তা প্রতিহত করতে হবে।”

সম্প্রতি এই মহাদেশে টিকা দেওয়ায় ধীরগতি এসেছে। যদিও স্পেনের প্রায় ৮০ শতাংশ মানুষ দুই ডোজ টিকা সম্পন্ন করেছেন। তবে ফ্রান্স ও জার্মানিতে এই সংখ্যা যথাক্রমে ৬৮ এবং ৬৬ শতাংশ। এ ছাড়া পূর্ব ইউরোপীয় কিছু দেশে এখনও এই সংখ্যা আরও কম।

২০২১ সালের অক্টোবরের মদ্যে মাত্র ৩২ শতাংশ রাশিয়ানকে সম্পূর্ণরূপে টিকা দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

হ্যান্স আরও বলেন ইউরোপীয় অঞ্চলে ক্রমবর্ধমান সংক্রমণের জন্য জনস্বাস্থ্য ব্যবস্থার শিথিলতাও অনেকটা দায়ী। এ জন্য ইউরোপ ও মধ্য এশিয়ার মোট ৫৩টি দেশ ঝুঁকির মুখে রয়েছে।

ডব্লিউএইচও’র কোভিড-১৯ বিষয়ক নেতা মারিয়া ভ্যান কেরখোভ বলেছেন, “প্রচুর টিকা এবং সরঞ্জামের সরবরাহ সত্ত্বেও গত চার সপ্তাহে ইউরোপজুড়ে ৫৫ শতাংশ বেড়েছে সংক্রমণের হার।”

গত ২৪ ঘণ্টায় জার্মানিতেই প্রায় ৩৪ হাজার নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

এ জন্য জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তারা উদ্বিগ্ন যে সংক্রমণের চতুর্থ ঢেউ বিপুল সংখ্যক মৃত্যু এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ওপর চাপ সৃষ্টি করতে পারে। সূত্র: বিবিসি

বৈশাখী নিউজ/ ইডি