ওমিক্রন পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেছেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন বছরে ক্লাস বাড়ানোর পরিকল্পনা স্থগিত করা হয়েছে এবং ওমিক্রনের কারণে পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) সকালে এইচএসসি পরীক্ষার রাজধানীর সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ কেন্দ্র পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা প্রথমে যখন অবস্থা খুব ভালো ছিল, তখন ওমিক্রনের কেথা শোনা যায়নি। এজন্য নতুন বছরের ক্লাস বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছলাম। এ মুহূর্তে পরিকল্পনা স্থগিত করা হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তবে এখনো আমাদের এ জাতীয় পরিকল্পনা নেই। আমরা চাই ধারাবাহিক প্রক্রিয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু থাকুক।

মন্ত্রী আশা করছেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা লাগবে না। তিনি বলেন, আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। টেকনিক্যাল কমিটির সঙ্গে আলোচনা চলছে। বিজ্ঞানের বাইরে গিয়ে তো কিছু করতে পারবো না।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সবকিছুর ঊর্ধ্বে আমাদের সন্তানদের সুরক্ষা। তাদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতে আমরা সবকিছু করতে প্রস্তুত আছি।

এসময় শিক্ষামন্ত্রী নির্বাচন কমশিনকে শিক্ষা পরিবারের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ২৩ ডিসেম্বর আমাদের একটা পরীক্ষা রয়েছে। ওইদিন একটি নির্বাচনরেও তারিখ রয়েছে। সেটি আমরা তাদের জানিয়েছি। পরে নির্বাচন কমিশন সেই তারিখ পিছিয়েছে। এমনিতে আমরা উভয়পক্ষ সমন্বয় করে কাজ করছিলাম। তবুও কোথাও একটা সমস্যা হয়েছে, সেটা ঠিক হয়ে গেছে। আমরা সেজন্য তাদের কাছে খুবই কৃতজ্ঞ।

এমপিওভুক্তির বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এমপিও ভুক্তির সবে মাত্র আবেদন নেওয়া হচ্ছে। এটা একটি লম্বা প্রক্রিয়া। আমি আশা করি যতগুলো প্রতিষ্ঠান যোগ্য বিবেচিত হবেন সবাই সুবিধা পাবেন। কারণ যোগ্য হওয়ার পরেও কেউ পাবেন কেউ পাবেন না সেটা ঠিক কবে না।

এসময় শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মাহবুব হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের চেয়ারম্যান সৈয়দ গোলাম ফারুক, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ প্রমুখ।

বৈশাখী নিউজ/ বিসি