টার্গেটের মধ্যেই পদ্মা সেতু উদ্বোধন হবে : সেতুমন্ত্রী

পদ্মা সেতুর বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমাদের কাজ এগিয়ে চলেছে। এখন পিচ ঢালাইয়ের কাজ চলছে। সেটা শেষ হলেই শেষ। আমরা তো অ্যাপ্রোচ আগেই করে ফেলেছি। আমাদের টার্গেটের মধ্যেই পদ্মা সেতু উদ্বোধন হবে। পদ্মা ২০২২ সালের জুনে উদ্বোধন হবে সেটি তো আগেও বলেছি।

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। বক্তব্য দেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

নতুন বছরের মেট্রোরেল, কর্ণফুলী টানেল উদ্বোধন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, এগুলো নতুন বছর মানে যে বছর শুরু হতে যাচ্ছে ২০২২ সালে। সময় আমরা আগামী বছর উদ্বোধনের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। সময়মতো সময় ঘোষণা করা হবে। নির্দিষ্ট দিন তারিখ সময়মতো শুনতো পাবেন। টার্গেট আমাদের ২০২২ সাল।

তিনি বলেন, সুশৃঙ্খল ও আধুনিক গণপরিবহন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। আমি এর সাফল্য কামনা করি। পর্যায়ক্রমে এ সেবার বিস্তার হবে। আরও নতুন রুট যুক্ত হবে। গোটা ঢাকা শহরকে একটা সুশৃঙ্খল পরিকল্পনার মধ্যে আনতে হবে। আরো ৪২টি রুট করার পরিকল্পনা আছে। মাত্রতো শুরু হলো। ঢাকা সিটি ও তার আশপাশে এই রুট চালু হবে। এর মধ্যে নরসিংদী, মানিকগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ, গাজীপুরও আছে।

খালেদার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, একটা সরকারের নীতিগত কোনো বিষয়ে অনেক মন্ত্রী আছে সবার কথা বলা উচিত না। এখানে দায়িত্ব আইনমন্ত্রী। তিনি যেখান পর্যন্ত বলেছেন আমি তার চেয়ে বেশি বলবো না। সেটাই সরকারের বক্তব্য। তিনি যেটুকু বলেছেন আমি সেটুকুতেই রয়েছি, তার বাইরে আমার কোনো বক্তব্য নেই। কারণ তিনি শেখ হাসিনা সরকারের আইনমন্ত্রী। এ বিষয়টা বলার দায়িত্ব তার। তিনি বলেছেন তাই আমি আর বলতে চাই না।

বৈশাখী নিউজ/ জেপা