ঐশ্বর্যার স্রেফ রূপ আছে, প্রতিভা নেই, ভুল ভেঙেছে আমার: হৃতিক

বলিউডের দুই জনপ্রিয় মুখ হৃত্বিক রোশন- ঐশ্বরিয়া রায়। ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই দুজনের জানাশুনা থাকলেও ঐশ্বরিয়াকে ঘিরে এক মারাত্মক ভুল ধারণা পোষণ করতেন হৃত্বিক! সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমনই তথ্য দেন ‘জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা’র এই অভিনেতা। কী এমন সেই ধারণা? কেনই বা তা বদলাতে বাধ্য হলেন চলুন জেনে আসা যাক।

হৃত্বিক বলেন, “ প্রথম প্রথম ঐশ্বরিয়াকে দেখে মনে হয়েছিল, এ মেয়ের শুধু রূপ আছে। অভিনয়ের কোন প্রতিভা নেই। আমার সেই ধারণা ভাঙল ‘ধুম ২’-র সেটে। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে বুঝলাম ঐশ্বরিয়া শুধু রূপসী নয়, এক জন চিন্তাশীল এবং লক্ষ্যে অবিচল অভিনেত্রীও বটে। ওর সুন্দর মুখে যতটা ধরা পড়ে, ওর প্রতিভার ছটা তার চেয়ে অনেক অনেক গুণ বেশি।”

১৯৯৪ সালে বিশ্বসুন্দরী হন ঐশ্বরিয়া। বলিউডে পা রাখেন তার কিছু দিন পরে। কেরিয়ারের একেবারে শুরুতে, বহু বছর আগের একটি বিজ্ঞাপনে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন হৃত্বিক এবং ঐশ্বরিয়া। বিধু বিনোদ চোপড়ার ‘মিশন কাশ্মীর’-এর অভিনয়ের প্রস্তাব পাওয়ার সূত্রে দু’জনের প্রথম দেখা।

এর পরে হৃত্বিকের সঙ্গে ‘কৃষ’ সিনেমাতে অভিনয়ের প্রস্তাব পেলেও সময়ের অভাবে সিনেমাটি করতে পারেননি ‘দেবদাস’-এর ‘পারো’। ফলে ‘ধুম ২’-ই দু’জনের একসঙ্গে প্রথম সিনেমা।

আর সেই সিনেমার সেটেই ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে মত বদলাতে বাধ্য হলেন ‘যোধা আকবর’-এর নায়ক। কাজের প্রতি ঐশ্বরিয়ার নিষ্ঠা এবং অভিনয় নিখুঁত করতে যত্ন ও পরিশ্রম তাকে রীতিমতো চমকে দিয়েছিলো।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

বৈশাখী নিউজ/ বিসি